আসন্ন ঈদুল ফিতরের পর সরকারবিরোধী আন্দোলনের রূপরেখা চূড়ান্ত করতে চায় বিএনপি। তাই আন্দোলনের রূপরেখা নিয়ে দেশবাসীর জনমত সৃষ্টি করতে কয়েকটি বিভাগীয় শহর ও জেলা শহরে জনসংযোগ-সমাবেশ করবেন দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।


 আসন্ন ঈদুল ফিতরের পর সরকারবিরোধী আন্দোলনের রূপরেখা চূড়ান্ত করতে চায় বিএনপি। তাই আন্দোলনের রূপরেখা নিয়ে দেশবাসীর জনমত সৃষ্টি করতে কয়েকটি বিভাগীয় শহর ও জেলা শহরে জনসংযোগ-সমাবেশ করবেন দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বর্তমানে বিভিন্ন জেলায় আন্দোলনকে কেন্দ্র করে দলের কর্মীসভা চলছে। কর্মীসভাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় নেতারা বিভিন্ন জেলা সফরে আছেন। জেলা সফরের সময় তারা আগামী নির্বাচনের জন্য যোগ্য প্রার্থী কে হতে পারেন এবং আন্দোলনের ডাক দিলে কতটুকু সফল হবে, তা নিয়ে আলোচনা করবেন।

স্থানীয় নেতাদের মনোভাব ও অবস্থা জানার পর ঢাকায় এসে প্রত্যেক টিমের প্রধান একটি সাংগঠনিক প্রতিবেদন তৈরি করে দলের চেয়ারপারসনের কাছে জমা দেবেন।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, 'ঈদুল ফিতরের পর দল আরও চাঙ্গা হবে। তখন থেকে পর্যায়ক্রমে আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হবে।'

অন্যদিকে, আসন্ন সংসদ নির্বাচনের ব্যাপারে ভেতরে ভেতরে প্রস্তুতি থাকলেও এ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে কি-না, তা এখনও চূড়ান্ত করেনি বিএনপি। ওই সময় কোন ধরনের সরকার থাকবে, দলের প্রস্তাবিত এ-সংক্রান্ত রূপরেখাকে বর্তমান সরকার কোন দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখবে- এসবের ওপর নির্ভর করছে নির্বাচনে দলটির যাওয়া না-যাওয়া বিষয়টি। এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

বিএনপির একাধিক নেতা জানান, নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকার গঠনের রূপরেখা তৈরির কার্যক্রম প্রায় শেষের দিকে। রূপরেখার বিভিন্ন ধারা-উপধারা ও অনুচ্ছেদে কী কী বিষয় থাকতে পারে, তা নিয়ে এরই মধ্যে খালেদা জিয়া দলসমর্থক বিশিষ্ট সাবেক আমলা ও বিশিষ্ট নাগরিক সমাজের বেশ কয়েকজন বুদ্ধিজীবীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন।

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, 'আমরা দল গোছানোর পাশাপাশি নির্বাচনের জন্যও প্রস্তুত। সরকার আমাদের দেওয়া রূপরেখা মেনে না নিলে এবং নির্বাচন পদ্ধতি নিয়ে আলোচনায় না এলে দলীয় ফোরামে আলোচনা করে পরবর্তী করণীয় বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।'

এ প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, 'বিএনপির নির্বাচনী রূপরেখা তৈরির কাজ চলছে। শিগগির দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া রূপরেখার প্রস্তাব দেবেন। এ রূপরেখা উপেক্ষা করলে আন্দোলনের মাধ্যমে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার কায়েম করে বিএনপি নির্বাচনে যাবে।'

Post A Comment: