বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাইতংয়ে পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে ভগ্নিপতির হামলায় চাথুইমং মার্মা (৩৩) নামে এক যুবক খুন হয়েছেন। বুধবার রাতে ভগ্নিপতি মংহ্লাথোয়াই মার্মা (৩০) এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।
বোনের বিয়ে দেওয়ায় যুবক খুন

  বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাইতংয়ে পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে ভগ্নিপতির হামলায় চাথুইমং মার্মা (৩৩) নামে এক যুবক খুন হয়েছেন। বুধবার রাতে ভগ্নিপতি মংহ্লাথোয়াই মার্মা (৩০) এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।


নিহত চাথুইমং মার্মা ফাইতং ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ফাদু বাগান পাড়ার মৃত নিওলা অং মার্মার ছেলে।

নিহতের বড় বোন ক্যওচিং প্রু মার্মা জানান, তার ভাই চাথুইমং মার্মা একজন দোকানদার। হেডম্যান পাড়া সংলগ্ন তার দোকান রয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। ফাদু বাগান পাড়া সংলগ্ন খালে পৌঁছালে মংহ্লাথোয়াই মার্মা কয়েকজনকে নিয়ে তার উপর হামলা চালান। তার চিৎকারে পাড়ার লোকজন এগিয়ে আসলে অপরাধীরা পালিয়ে যায়। নিহতের গলা ও পেটে কোপের দাগ রয়েছে।

জানা গেছে, বছর দুয়েক আগে একই পাড়ার ক্যওচাচিং মার্মার ছেলে মংহ্লাথোয়াই মার্মা নিহতের ছোট বোন থুই মা প্রু মার্মাকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে মংহ্লাথোয়াই মার্মা তার স্ত্রী থুই মা প্রুর কোনো খোঁজ খবর রাখেন নি। খোঁজখবর না রাখায় থুই মা প্রু নিজের পছন্দে কয়েক দিন আগে আরেকজনকে বিয়ে করেন। পরবর্তীতে বোনের বিয়ে দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে আগের ভগ্নিপতি চাথুইমং তার স্ত্রীর বড় ভাই মংহ্লাথোয়াইকে খুন করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফাইতং পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত ক্যাম্প ইনচার্জ শেখর দাশ জানান, রাত ২টায় লাশ উদ্ধার করে আনা হয়েছে। সেই সঙ্গে হত্যাকাণ্ডে সহযোগী সুই চি উ মার্মা নামে একজনকেও আটক করা হয়েছে।

লামা থানার অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান জেলা হাসপাতালে পাঠানো হবে। মূল আসামিদের আটকের অভিযান চলছে।

Post A Comment: