খুলনার স্ত্রী হত্যার দায়ে মো. লিটন মোল্লা (৩০) নামে এক যুবক ও তার ভগ্নিপতিকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।
 


খুলনার স্ত্রী হত্যার দায়ে মো. লিটন মোল্লা (৩০) নামে এক যুবক ও তার ভগ্নিপতিকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।


বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় খুলনার জন নিরাপত্তা বিঘœকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এস, এম সোলায়মান এ রায় ঘোষণা করেছেন।

রায় ঘোষণাকালে দ-প্রাপ্ত আসামি গোপালগঞ্জের তারগ্রাম এলাকার মইনুদ্দিন মোল্লার ছেলে লিটন মোল্লা আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। লিঠুর ভগ্নিপতি মজিদ হাওলাদার পলাতক রয়েছেন।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী থেকে জানা গেছে, ২০০৮ সালের ২ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় খুলনার খালিশপুরস্থ বাবার বাড়ি থেকে স্বামী লিটুর সাথে গোপালগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন রাজিয়া সুলতানা দীপা (১৯)। পরদিন রূপসা ব্রিজ এলাকার জাবুসার বিল থেকে দীপার লাশ উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ। ২৫ফেব্রুয়ারি দীপার লাশের ছবি পত্রিকায় দেখে তার বাবা হারুনঅর রশিদ খুমেক হাসপাতালে গিয়ে শনাক্ত করেন।

এঘটনায় রূপসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আজমল হোসেন বাদী হয়ে লিটু মোল্লা ও তার ভগ্নিপতি মজিদ হাওলাদারের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মাহফুজ তদন্ত শেষে আদালতে তদন্ত রিপোর্ট (চার্জশিট) দাখিল করেন। স্বাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় আজ আদালতে এ দুজনকেই মৃত্যুদ-াদেশ দেয়া হয়েছে। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন বিশেষ পিপি আরিফ মাহমুদ লিটন।

Post A Comment: