বরিশালে কৃষক লীগ নেতা শামসুল আলম মৃধাকে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি ও দুইজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে বরিশাল অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক সুদীপ্ত দাস আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় প্রদান করেন।
বরিশালে কৃষক লীগ হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি, দুইজনের যাবজ্জীবন 


  বরিশালে কৃষক লীগ নেতা শামসুল আলম মৃধাকে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি ও দুইজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে বরিশাল অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক সুদীপ্ত দাস আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় প্রদান করেন।


ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত পলাশ প্যাদা বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম রাজগুরু গ্রামের ছালাম প্যাদার ছেলে। যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত দুইজনের মধ্যে মরিয়ম বেগম দক্ষিণ ভূতের দিয়া গ্রামের আব্দুল হালিম মিয়ার স্ত্রী এবং অপরজন একই উপজেলার রাজগুরু গ্রামের জয়নাল আবেদিন ভূঁইয়া।

পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) গিয়াসউদ্দিন কাবুল জানান, আসামিরা মাদকদ্রব্য বিক্রি করত। নিহত শামসুল আলম মৃধা তাদের মাদক বিক্রিতে নিষেধ করে। এর জের ধরে ২০১৩ সালের ১৬ মার্চ দুপুরে সামসুল আলমকে ডেকে সুগন্ধা নদীর পাড়ে নিয়ে মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে হত্যা করে পলাশ প্যাদা। এসময় অপর দুজন মরিয়ম ও জয়নাল সহায়তা করে।

এ ঘটনায় শামসুল আলমের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির এসআই রেজাউল হক ওই বছরের ১৬ নভেম্বর ৩ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। আদালত ১০ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এই রায় প্রদান করেন।

Post A Comment: