মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের রঘুরচর গ্রামে এক ছাত্রীর গোসলের দৃশ্য ভিডিও করার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশকে অবহিত করায় ওই ছাত্রীকে এসিডে ঝলসে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে। তবে এমন অভিযোগ সত্য নয় বলে দাবি করছে অভিযুক্তের পরিবার।
গজারিয়ায় স্কুলছাত্রীর গোসলের দৃশ্য ধারণ 


মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার হোসেন্দী ইউনিয়নের রঘুরচর গ্রামে এক ছাত্রীর গোসলের দৃশ্য ভিডিও করার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশকে অবহিত করায় ওই ছাত্রীকে এসিডে ঝলসে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়েছে। তবে এমন অভিযোগ সত্য নয় বলে দাবি করছে অভিযুক্তের পরিবার।


জানা গেছে, রঘুরচর গ্রামের ওই মেয়ে হোসেন্দী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। সম্প্রতি ওই ছাত্রী তাদের বাড়ির গোসলখানায় গোসল করতে গেলে কাঁচের ভাঙ্গা অংশ দিয়ে ওই গ্রামের শহিদুল্লাহ  মিয়ার ছেলে নূরা মিয়া মোবাইলে গোসলের দৃশ্য ভিডিও করেন। স্থানীয় হাসান মিয়ার স্ত্রী বিথী এই কাজ করতে নূরাকে সহযোগিতা করেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

পরে ওই ছাত্রীর পরিবার বিষয়টি থানায় অবহিত করলে নূরা ওই ছাত্রীকে এসিড মেরে ঝলসে দেয়ার হুমকি দেয় বলে ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ। তবে ভিডিও ধারণ ও হুমকির অভিযোগ অস্বীকার করে নূরার বড় ভাই আলী আহম্মেদ মিয়া জানান, তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সত্য নয়।

এ ব্যাপারে গজারিয়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এএসআই তুষার মিয়া জানান, খবর পাওয়ার পর পুলিশ দুইবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে অভিযুক্ত নূরা ও তার পরিবারের কাউকে না পাওয়ায় তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা সম্ভব হয়নি।

গজারিয়া থানার এএসআই মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, এ ব্যাপারে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে একটি অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি তদন্তের পর আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Post A Comment: