বগুড়ার ধুনটে পুলিশ অষ্টম শ্ৰেণীর এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও অপহরণের অভিযোগে শামিম হোসেন (২৫) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে।
 


 বগুড়ার ধুনটে পুলিশ অষ্টম শ্ৰেণীর এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও অপহরণের অভিযোগে শামিম হোসেন (২৫) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে।


২৩ এপ্রিল রবিবার রাতে ধর্ষিতা ওই ছাত্রী বাদী হয়ে ধুনট থানায় মামলা দায়ের করলে ২৪ এপ্রিল সোমবার সকালে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায়।

গ্রেফতারকৃত শামিম হোসেন উপজেলার নিমগাছি গ্রামের হাফিজার রহমানের ছেলে।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রমতে, উপজেলার গোসাইবাড়ী ইউনিয়নের চরনাটাবাড়ী গ্রামের জনৈক ব্যক্তির মেয়ে নাটাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার পথে নিমগাছী ইউনিয়নের জয়শিং গ্রামের হাফিজুর রহমানের ছেলে শামিম হোসেন প্রায়ই ওই
ছাত্রী কে উত্ত্যক্ত করতো।

গত ২৮ মার্চ সকাল ১০টায় বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে শামিম হোসেন ওই ছাত্রীকে সিএনজি অটোরিকশা করে অপহরণ করে বগুড়ার অজ্ঞাত একটি স্থানে তাকে আটকে রেখে ধর্ষণ করে।

পরবর্তীতে শামিম হোসেন ঐ ছাত্রীকে ধুনট সদরপাড়া এলাকার তার আত্মীয়ের বাড়ির সামনে ফেলে পালিয়ে যায় সে। তবে লোকলজ্জার ভয়ে বিষয়টি ওই ছাত্রী গোপন রাখলেও গত শনিবার শামিম হোসেন আবারও তাকে বিদ্যালয় থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

এসময় স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় রোববার রাতে ওই ছাত্রী বাদী হয়ে আটক শামিম হোসেনকে আসামি করে ধুনট থানায় মামলা দায়ের করে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Post A Comment: