জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান ও অভ্যšতরীণ বিভাগের সিনিয়র সচিব মোঃ নজিবুর রহমান বলেন, দক্ষিণাঞ্চলের রপ্তানিমূখী শিল্পে বিশেষ প্রণোদনা দেয়ার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে। আসন্ন ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ব্যবসা,

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান ও অভ্যšতরীণ বিভাগের সিনিয়র সচিব মোঃ নজিবুর রহমান বলেন, দক্ষিণাঞ্চলের রপ্তানিমূখী শিল্পে বিশেষ প্রণোদনা দেয়ার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে। আসন্ন ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ব্যবসা,


দক্ষিণাঞ্চলের রপ্তানিমূখী শিল্পে বিশেষ প্রণোদনা দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে 


বিনিয়োগ, শিল্পখাত, উপকূলীয় অঞ্চল,নিম্নাঞ্চল ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নের দিকে দৃষ্টি রেখে বাজেট প্রণয়ন করা হবে। তিনি আজ দুপুরে নগরীর এক অভিজাত হোটেলে বৃহত্তর খুলনার অংশীজনদের সাথে ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের জাতীয় বাজেট প্রণয়নের লক্ষ্যে প্রাক-বাজেট আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। খুলনা বিভাগের জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অধীনস্থ দপ্তরসমূহ ও খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এ অনুষ্ঠানে আয়োজন করে।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দক্ষিণাঞ্চলের উন্নয়নের জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ডসহ অন্যান্য দপ্তর সমূহকে বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন। তিনি বলেন, দক্ষিণাঞ্চল একটি সম্ভাবনাময় অঞ্চল। পদ্মা সেতু, মোংলা বন্দরের আধুনিকায়ন, রামপাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, খুলনা-কোলকাতা ট্রেন যোগাযোগ ও খানজাহান আলী বিমান বন্দর চালু হলে এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড আরও গতিশীলতা পাবে।

তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্যে সরকার মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন-২০১২ প্রণয়ন করেছে। এটি ১ জুলাই ২০১৭ থেকে পুরোপুরিভাবে কার্যকর হবে। নতুন এ ভ্যাট আইনে ব্যবসায়ীদের স্বার্থ সংক্ষরণ ও ভ্যাটকে আরও সহজীকরণ করা হয়েছে। এর ফলে ভ্যাট প্রদানে বিভিন্ন সমস্যাসহ এবিষয়ে ব্যবসায়ীদের ভীতিবোধ কমে আসবে। নতুন ভ্যাট আইন সম্পর্কে ব্যবসায়ীদের অস্পষ্টতা না থাকে সেজন্য তিনি সংশি¬ষ্ট প্রতিষ্ঠান ও কর্মকর্তাদেরকে ব্যবসায়ীদের নিয়ে বিভিন্ন সেমিনার ও আলোচনা করার পরামর্শ দেন।

বাজেট প্র¯তাব ও উন্মুক্ত আলোচনায় ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা এনবিআর চেয়ারম্যানের কাছে বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরেন। তারা মোংলা বন্দরকে ঘিরে যে অর্থনৈতিক পরিধির সুযোগ আছে তা বা¯তবায়নে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্ধ দেয়া, ভোমরা স্থল বন্দর দিয়ে অন্যান্য বন্দরের ন্যায় সকল পণ্য আমদানির অনুমোদন দেয়া, বন্দরের আধুনিকায়ণ, এ অঞ্চলের পাট শিল্পকে বাঁচাতে নতুন নতুন উদ্যোগ নেয়া, খুলনা-বেনাপোল যোগাযোগ ব্যবস্থা ৪ লেনে উনীœত করা, বিভিন্ন শিল্প কারখানায় বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিত করার প্র¯তাব করেন।

অনুষ্ঠানে ভ্যাট আইন সম্পর্কে বি¯তারিত আলোচনা করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (ভ্যাটনীতি) ব্যারিস্টার জাহাঙ্গীর হোসেন।  এতে সভাপতিত্ব করেন খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি সভাপতি কাজী আমিনুল হক। এসময় খুলনার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মোহাম্মদ ফারুক হোসেন, যশোরের জেলা প্রশাসক ড. মোঃ হুমায়ুন কবীরসহ নৌবাহিনী, কোস্ট গার্ড, কাস্টমস, পুলিশ, র‌্যাব, রাজস্ব বোর্ডের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, খুলনা বিভাগের বিভিন্ন জেলার চেম্বার সভাপতি, ব্যবসায়ী, আইনজীবী ও গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Post A Comment: