পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে তিন বছরের শিশুকে অপহরণের তিনদিনের মাথায় ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
 


পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে তিন বছরের শিশুকে অপহরণের তিনদিনের মাথায় ওই শিশুর  লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।


শুক্রবার সকাল ৭ টায় ওই শিশুর গলাকাটা লাশ সিরাজ মাস্টার নামের এক ব্যক্তির বাড়ির খড়েরগাদার ভেতর থেকে উদ্ধার করে পুলিশ । এ ঘটনায় গৃহকর্তা সিরাজ সহ  আটজনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার সকাল ৯ টায় রাণীশংকৈল উপজেলার মাসুদ রানার তিন বছরের শিশুপুত্র আব্দুল ফাফি তুষার অপহৃত হয়। পরবর্তীতে তাকে ফিরে পেতে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। ওইদিন দুপুর ২ টায় মোবইলে কল করে সন্তানকে ফিরে পেতে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়।

টাকা কোথায় পাঠাতে হবে জানতে চাইলে ফোন বন্ধ করে দেয় অপহরণকারীরা। পরে ফোনটি আর খোলা পাওয়া যায়নি।

এদিকে শুক্রবার সকালে পচা গন্ধের সূত্র ধরে এলাকাবাসী সিরাজ মাস্টারের বাড়ির খড়ের গাদার ভেতর শিশুটির লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

উল্লেখ, যে মুঠোফোন দিয়ে শিশুটির মুক্তিপণ দাবি করা হয় সেই মুঠোফোনটি গত মঙ্গলবার শিশুটির নানীর বাসা থেকে চুরি হয়েছিল।

Post A Comment: