সব সময় তো মুররি, গরু কিংবা খাসির বিরিয়ানি খেয়েছেন। এই বৈশাখে মাছের বিরিয়ানি খেয়ে দেখতে পারেন। বাসায় বসে খুব সহজে তৈরি করতে জেনে নিন কী কী উপকরণ লাগবে এই রেসিপিতে এবং কীভাবে তৈরি করবেন এই বিরিয়ানি।

সব সময় তো মুররি, গরু কিংবা খাসির বিরিয়ানি খেয়েছেন। এই বৈশাখে মাছের বিরিয়ানি খেয়ে দেখতে পারেন। বাসায় বসে খুব সহজে তৈরি করতে জেনে নিন কী কী উপকরণ লাগবে এই রেসিপিতে এবং কীভাবে তৈরি করবেন এই বিরিয়ানি।

উপকরণ : 
১ কেজি মাছ
১ কাপ ঘি
৪ চা চামচ হলুদের গুঁড়ো
৫টি পেঁয়াজ কুচি
২ চা চামচ ধনিয়া গুঁড়ো
৬টি লবঙ্গ
১ কাপ টকদই
২ টেবিল চামচ কিশমিশ
৫ কাপ বাসমতি চাল
৫ টেবিল চামচ বাদাম কুচি
৪ চা চামচ মরিচের গুঁড়ো
২ টুকরো দারুচিনি
৫ টি টমেটো কুচি
৩ লিটার পানি ,
লেবুর রস ও লবণ স্বাদমতো।


প্রণালি :
প্রথমে মাছে লেবুর রস ও হলুদের গুঁড়ো মেখে মেরিনেটের জন্য ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট রেখে দিন। প্যানে দুই টেবিল চামচ ঘি দিয়ে গরম করুন। এতে বাসমতি চাল ১০ থেকে ১৫ মিনিট ভেজে নিন। এখন এতে লবণ, হলুদের গুঁড়ো ও তিন লিটার গরম পানি দিন। অল্প আঁচে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। সেদ্ধ হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রখুন। অন্য একটি প্যানে ঘি দিয়ে তাতে কিশমিশ ও বাদাম ভেজে বাটিতে তুলে রাখুন। এখন এই ঘিতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে বাদামি হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এর মধ্যে মরিচের গুঁড়ো, ধনিয়ার গুঁড়ো, হলুদের গুঁড়ো, লবণ ও সামান্য পানি দিয়ে মসলা কষিয়ে নিন। এখন এতে মেরিনেট করা মাছগুলো দিয়ে পাঁচ থেকে আট মিনিট রান্না করুন। এক কাপ পানি, টমেটো কুচি ও টকদই দিয়ে নেড়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। ঘন হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে বাটিতে ঢেলে নিন। এবার একটি বড় প্যানে প্রথমে ঘি দিয়ে পোলাও, মাছ, কিশমিশ ও বাদাম লেয়ার করে দিন। এবার ঢাকনা দিয়ে ঢেকে পাঁচ থেকে আট মিনিট চুলার ওপর দমে রাখুন। ব্যস, তৈরি হয়ে গেল ভিন্ন স্বাদের ফিশ বিরিয়ানি।

Post A Comment: