গল টেস্টের দুই ইনিংসের মতো কলম্বো টেস্টের প্রথম ইনিংসেও বাংলাদেশকে দারুণ সূচনা এনে দিয়েছেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। নিজেদের শততম টেস্টে শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে করা ৩৩৮ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২৭.৪ ওভারে ৯৫ রানের জুটি গড়েন তামিম ও সৌম্য। তামিম মাত্র এক রানের জন্য হাফ সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। ৪৯ রান করে লঙ্কান অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে। সৌম্য ৪০ রানে অপরাজিত আছেন। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেছেন ইমরুল কায়েস।


  গল টেস্টের দুই ইনিংসের মতো কলম্বো টেস্টের প্রথম ইনিংসেও বাংলাদেশকে দারুণ সূচনা এনে দিয়েছেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। নিজেদের শততম টেস্টে শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে করা ৩৩৮ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২৭.৪ ওভারে ৯৫ রানের জুটি গড়েন তামিম ও সৌম্য।



তামিম মাত্র এক রানের জন্য হাফ সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। ৪৯ রান করে লঙ্কান অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে। সৌম্য ৪০ রানে অপরাজিত আছেন। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেছেন ইমরুল কায়েস।    

গল টেস্টের দুই ইনিংসেও ভালো শুরু করেছিলেন বাঁ-হাতি এই দুই ওপেনার। লঙ্কানদের বিপক্ষে ২৫৯ রানে হারা মানা ম্যাচের প্রথম ইনিংসে উদ্বোধনী জুটিতেই ১১৮ রান যোগ করেছিলেন তামিম ও সৌম্য। দ্বিতীয় ইনিংসেও ভালো শুরু করেছিলেন। এসেছিলো ৬৭ রান। কিন্তু তামিম-সৌম্যর ভালো শুরু কোনো ইনিংসেই কাজে লাগাতে বাংলাদেশ। নিমেষেই ভেঙে যায় বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপ।

ইনিংস উদ্বোধন করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেয়ার দিক থেকে বেশ ধারাবাহিক হয়ে উঠেছেন তামিম ও সৌম্য। টানা তিনটি ইনিংসে উদ্বোধনের কাজটি ভালোভাবেই সামলে নিয়েছেন তারা। তারই ধারাবাহিকতায় কলম্বো টেস্টেও তামিম-সৌম্যর দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ভালো শুরু হলো। পরবর্তী ব্যাটসম্যানরা তামিম-সৌম্যর পথে হেটে বাংলাদেশের ইনিংস এগিয়ে নিতে পারে কিনা সেটা দেখতে অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে সবাইকে।

এরআগে টস জিতে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কা শুরুতেই বাংলাদেশের বোলারদের তোপের মুখে পড়ে। ৭০ রানের মধ্যেই চার উইকেট হারিয়ে বসে তারা। এরপরও চলতে থাকে নিয়মিত উইকেট পতন। তবে বাধা হয়ে দাঁড়ান দিনেশ চান্দিমাল।

১৩৮ রানের অসাধারণ এক ইনিংস খেলে শ্রীলঙ্কাকে ৩৩৮ রানে পৌঁছে দেন তিনি। এছাড়া ধনঞ্জয়া ৩৪, ডিকভেলা ৩৪, অধিনায়ক হেরাথ ২৫ ও লাকমল ৩৫ রান করেন। বাংলাদেশের তরুণ স্পিনার মিরাজ সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন। সাকিব, মুস্তাফিজ ও শুভাশীষ দুটি করে উইকেট পান। 

Post A Comment: