রোববার থেকে চার ম্যাচ টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ। এই সিরিজের টেস্ট দলে থাকতে পারেন নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরা সালমান বাট। আর এই খবরেই নিজের আপত্তির কথা জানালেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি। আফ্রিদির মতে, সালমান বাটকে আবারও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে না ডাকা বর্তমানে ফিক্সারদের জন্য একটি শিক্ষা হতে পারে। সদ্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়া এই ক্রিকেটার বলেন, ‘এই ধরণের দায়িত্বজ্ঞানহীন সিদ্ধান্ত ভবিষ্যতের ক্রিটারদের সুযোগ করে দেবে। আমার ধারণা এটাই বলে। আমরা আগে এমন কোন উদাহরণ তৈরি করতে পারিনি যাতে ফিক্সাররা শিক্ষা পায়। তাই এখন থেকেই সে পথে এগোনো উচিৎ। নতুন করে কাউকে দলে জায়গা দেওয়া অজ্ঞতার সামিল।’



রোববার থেকে চার ম্যাচ টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ। এই সিরিজের টেস্ট দলে থাকতে পারেন নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরা সালমান বাট। আর এই খবরেই নিজের আপত্তির কথা জানালেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি।

আফ্রিদির মতে, সালমান বাটকে আবারও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে না ডাকা বর্তমানে ফিক্সারদের জন্য একটি শিক্ষা হতে পারে। সদ্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়া এই ক্রিকেটার বলেন, ‘এই ধরণের দায়িত্বজ্ঞানহীন সিদ্ধান্ত ভবিষ্যতের ক্রিটারদের সুযোগ করে দেবে। আমার ধারণা এটাই বলে। আমরা আগে এমন কোন উদাহরণ তৈরি করতে পারিনি যাতে ফিক্সাররা শিক্ষা পায়। তাই এখন থেকেই সে পথে এগোনো উচিৎ। নতুন করে কাউকে দলে জায়গা দেওয়া অজ্ঞতার সামিল।’

২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে পাঁচ বছরের জন্য সব ধরণের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন মোহাম্মদ আমির, সালমান বাট ও মোহাম্মদ আসিফ। এদের মধ্যে গেলো বছর মোহাম্মদ আমিরকে আবারও জাতীয় দলে সুযোগ দেওয়া হলেও, বাকীদের ডাকা হয়নি। তবে ২০১৫ সালে নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরে ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ দাপটের সাথেই খেলছেন বাট ও আসিফ।

এদিকে সদ্য শেষ হওয়া পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) পাঁচ পাকিস্তানি ক্রিকেটারকে ফিক্সিংয়ের অপরাধে নিষিদ্ধ করা নিয়ে আবারও উত্তপ্ত পাকিস্তান ক্রিকেট। এই অবস্থায় বাটকে আবারও জাতীয় দলে ফেরানো ঠিক হবে না বলেই মন্তব্য করেছেন তারকা অলরাউন্ডার আফ্রিদি। 

সূত্র: ডন

Post A Comment: