অবিশ্বাস্য জয়ে প্যারিস সেন্ত জার্মেইকে ছিটকে দিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে পা রেখেছে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। বুধবার রাতে শেষ ষোলর দ্বিতীয় লেগে নিজেদের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে ৬-১ গোলে জিতেছে তারা। প্রথম লেগে পিএসজির কাছে ৪-০ গোলে হেরেছিল কাতালানরা। দুই লেগ মিলিয়ে জয়টা ৬-৫ গোলে। এই জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সেলোনা গড়ল নতুন ইতিহাস। নকআউট পর্বে প্রথম লেগের চার গোলের ঘাটতি পুষিয়ে পরের রাউন্ডে ওঠার এটাই প্রথম নজির।


অবিশ্বাস্য জয়ে প্যারিস সেন্ত জার্মেইকে ছিটকে দিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে পা রেখেছে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। বুধবার রাতে শেষ ষোলর দ্বিতীয় লেগে নিজেদের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে ৬-১ গোলে জিতেছে তারা। প্রথম লেগে পিএসজির কাছে ৪-০ গোলে হেরেছিল কাতালানরা। দুই লেগ মিলিয়ে জয়টা ৬-৫ গোলে।

এই জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সেলোনা গড়ল নতুন ইতিহাস। নকআউট পর্বে প্রথম লেগের চার গোলের ঘাটতি পুষিয়ে পরের রাউন্ডে ওঠার এটাই প্রথম নজির।

ন্যু ক্যাম্পে দ্বিতীয় লেগের ম্যাচের তখন ৮৭ মিনিট। ঘরের মাঠে প্যারিস সেন্ত জার্মেইয়ের বিপক্ষে বার্সেলোনা এগিয়ে ৩-১ গোলে। কিন্তু তখনো দুই লেগ মিলিয়ে প্যারিস এগিয়ে ৫-৩ গোলে। তার উপরে ন্যু ক্যাম্পে একটি মূল্যবান অ্যাওয়ে গোল পেয়েছে ফ্রেঞ্চ ক্লাবটি। তাই বাকি সময়ে বার্সাকে করতে হত আরো তিন গোল। অসাধ্য সাধন করল লুইস এনরিকের শিষ্যরা। ৮৮ মিনিটে লক্ষ্যভেদ করলেন নেইমার। স্কোরলাইন ৪-১। ম্যাচে যোগ হল অতিরিক্ত পাঁচ মিনিট। অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটে ব্রাজিলিয়ান তারকা পিএসজির জাল কাঁপালেন আবারো। ৫-১ এ লিড নিল বার্সা। ম্যাচ শেষ হওয়ার এক মিনিট আগে পিএসজিকে হতবাক করে ৬-১ গোলে বার্সার জয় নিশ্চিত করলেন বদলি সার্জি রবার্তো। মেসি-সুরারেজ-নেইমারকে টপকে হয়ে গেলেন জয়ের নায়ক। প্রথম লেগে ৪-০ গোলে হেরেও কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে যায় বার্সেলোনা।

ইতিহাসগড়ার লক্ষ্য নিয়ে নামা বার্সেলোনার শুরুটা হয়েছিল দুর্দান্ত। ম্যাচের ৩ মিনিটেই লুইস সুয়ারেজের গোল। লিড নেয় স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার আগে কারজাওয়ার আত্মঘাতী গোলে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় তারা।
বিরতির পর ম্যাচের ৫০ মিনিটে লিওনেল মেসি পেনাল্টি থেকে বার্সার তৃতীয় গোলটি করেন। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চলতি আসরে এটি আর্জেন্টাইন ক্ষুদে জাদুকরের ১১ নম্বর গোল। কিন্তু ৬২ মিনিটে গোল করে পিএসজির এডিনসন কাভানি স্তব্ধ করে দেন ক্যাম্প ন্যুকে। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে পিএসজির পক্ষে স্কোরলাইন দাঁড়ায় ৫-৩। সঙ্গে মূল্যবান অ্যাওয়ে গোল। বার্সেলোনার প্রয়োজন হয়ে পড়ে তিনটি গোলের।

কিন্তু ম্যাচের শেষ সাত মিনিটের ম্যাজিকে তিন গোল করে প্রতিযোগিতা থেকে পিএসজিকে ছিটকে দেয় বার্সেলোনা। এদিকে রাতের অন্য খেলায় বরুসিয়া ডর্টমুন্ড নিশ্চিত করেছে শেষ আট। নিজেদের মাঠে তারা ৪-০ গোলে হারিয়েছে বেনফিকাকে। হ্যাটট্রিক করেছেন পিয়েরে এমরিক অবামেয়াং। আগের লেগে ডর্টমুন্ড হেরেছিল ১-০ গোলে। দুই লেগ মিলিয়ে তাদের জয়টা তাই ৪-১ গোলের।

Post A Comment: