২০১২ সালে ‘কাহানি’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে জনপ্রিয়তা পান নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয় নি এই অভিনেতাকে। নিজের মেধার জোরে আজ তিনি বলিউডের অন্যতম তারকা। আর তারকাদের ঘিরে থাকে নানান চটকদার গসিপ। তেমনি এক ম্যাগাজিন নওয়াজের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে মিথ্যা খবর প্রকাশ করল। আর তাতেই ম্যাগাজিনের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ করলেন নওয়াজ। ফিল্মফেয়ার ভারতের সবচেয়ে পুরনো এবং জনপ্রিয় বলিউড ম্যাগাজিন। এই ম্যাগাজিনেই লেখা হয়েছে, বিবাহবিচ্ছেদ হতে চলেছে নওয়াজ ও তার স্ত্রীর। শুধু তাই নয়, নওয়াজ ও তার স্ত্রী হিসেবে দাবি করে যে ছবিটি ছাপা হয়, তা নওয়াজের সঙ্গে তোলা অন্য নারীর ছবি। এই কারণেই ম্যাগাজিন কর্তৃপক্ষকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছেন অভিনেতা।


২০১২ সালে ‘কাহানি’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে জনপ্রিয়তা পান নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয় নি এই অভিনেতাকে। নিজের মেধার জোরে আজ তিনি বলিউডের অন্যতম তারকা। আর তারকাদের ঘিরে থাকে নানান চটকদার গসিপ। তেমনি এক ম্যাগাজিন নওয়াজের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে মিথ্যা খবর প্রকাশ করল। আর তাতেই ম্যাগাজিনের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ করলেন নওয়াজ।

ফিল্মফেয়ার ভারতের সবচেয়ে পুরনো এবং জনপ্রিয় বলিউড ম্যাগাজিন। এই ম্যাগাজিনেই লেখা হয়েছে, বিবাহবিচ্ছেদ হতে চলেছে নওয়াজ ও তার স্ত্রীর। শুধু তাই নয়, নওয়াজ ও তার স্ত্রী হিসেবে দাবি করে যে ছবিটি ছাপা হয়, তা নওয়াজের সঙ্গে তোলা অন্য নারীর ছবি। এই কারণেই ম্যাগাজিন কর্তৃপক্ষকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছেন অভিনেতা।

আইনি নোটিসে বলা হয়েছে, ম্যাগাজিনের এমন অসত্য খবর ছাপার জন্য মানহানি হয়েছে অভিনেতার। সেই সঙ্গে তাকে মানসিক নির্যাতনও সহ্য করতে হয়েছে। তাই সাত দিনের মধ্যেই ভুল স্বীকার করে একটি প্রতিবেদন ছাপার দাবি জানানো হয়েছে। ওদিকে প্রতিবেদনটির ছবি পরিবর্তন করে দেওয়া হলেও ফিল্মফেয়ার ম্যাগাজিনের পক্ষ থেকে তেমন কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায় নি।
এরই মধ্যে নওয়াজের ম্যানেজার নিজের টুইটার প্রোফাইলে নওয়াজ ও তার স্ত্রীর একটি ছবি পোস্ট করেন। যাতে তিনি বিবাহবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অভিনেতাকে। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, নওয়াজ এবং তার স্ত্রীর সম্পর্ক অটুট রয়েছে।

সূত্র- ফার্স্টপোস্ট

Post A Comment: