রাষ্ট্রদ্রোহসহ ১১ মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ১৪ মার্চ মঙ্গলবার হাজিরা দিতে ঢাকার নিম্ন আদালতে উপস্থিত হবেন। ১৩ মার্চ সোমবার খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া এ বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে জানান, ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লার আদালতে মামলাগুলোর অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য দিন ধার্য আছে। খালেদার বিরুদ্ধে ১১টি মামলা হলো- দারুসসালাম থানার নাশকতার আট মামলা, রাষ্ট্রদ্রোহের একটি ও যাত্রাবাড়ী থানার দুটি মামলা।

 
রাষ্ট্রদ্রোহসহ ১১ মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ১৪ মার্চ মঙ্গলবার হাজিরা দিতে ঢাকার নিম্ন আদালতে উপস্থিত হবেন। 


১৩ মার্চ সোমবার খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া এ বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকে জানান, ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লার আদালতে মামলাগুলোর অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য দিন ধার্য আছে।

খালেদার বিরুদ্ধে ১১টি মামলা হলো- দারুসসালাম থানার নাশকতার আট মামলা, রাষ্ট্রদ্রোহের একটি ও যাত্রাবাড়ী থানার দুটি মামলা।

মঙ্গলবার ১১ মামলার মধ্যে ১০ মামলার অভিযোগ গঠন শুনানির দিন ধার্য রয়েছে এবং যাত্রাবাড়ী থানার অপর একটি মামলায় অভিযোগপত্র গ্রহণের দিন ধার্য রয়েছে।

২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে নাশকতার অভিযোগে মামলাগুলো দায়ের করা হয়। পরে এ মামলাগুলো চলতি বছরের মে এবং জুন মাসে ঢাকার সিএমএম আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি দেখানো হয়েছে।

নাশকতার মামলাগুলোর মধ্যে দারুসসালাম থানার দুটি মামলায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপির ৫১ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। এর পর গত ২৬ মে দারুসসালাম থানার একটি মামলায় খালেদা জিয়াসহ ২৬ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। গত ২৯ মে খালেদা জিয়াসহ ৫১ আসামির বিরুদ্ধে একই থানার আরও দুটি মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। সর্বশেষ ৬ জুন দারুসসালাম থানায় আরও চারটি মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১০৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

Post A Comment: