যুক্তরাষ্ট্রের মাউন্টেন ভিউয়ে বর্তমান প্রধান কার্যালয়ের কাছেই নতুন কার্যালয় স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে গুগল। উদ্যোগ অবশ্য আগেই নেওয়া হয়েছিল, ২০১৫ সালে। কিন্তু নানা কারণে সে সময় প্রকল্পটি বাতিল হয়ে যায়। সম্প্রতি নতুন কার্যালয়ের জন্য দরকারি অনুমোদন দিয়েছে মাউন্টেন ভিউ সিটি কাউন্সিল। এর নাম দেওয়া হচ্ছে চার্লসটন ইস্ট। ২০১৯ সালের মধ্যে কাজ শেষ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের মাউন্টেন ভিউয়ে বর্তমান প্রধান কার্যালয়ের কাছেই নতুন কার্যালয় স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে গুগল। উদ্যোগ অবশ্য আগেই নেওয়া হয়েছিল, ২০১৫ সালে। কিন্তু নানা কারণে সে সময় প্রকল্পটি বাতিল হয়ে যায়। সম্প্রতি নতুন কার্যালয়ের জন্য দরকারি অনুমোদন দিয়েছে মাউন্টেন ভিউ সিটি কাউন্সিল। এর নাম দেওয়া হচ্ছে চার্লসটন ইস্ট। ২০১৯ সালের মধ্যে কাজ শেষ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

* ১৮ একর জায়গায় ৫ লাখ ৯৫ হাজার বর্গফুট আয়তনের দ্বিতল ভবন স্থাপন করা হবে।
* নতুন ভবনে ২ হাজার ৪০০ থেকে ২ হাজার ৭০০ কর্মী কাজ শুরু করবেন। তাঁদের বেশির ভাগ প্রকৌশলী।
* এবারই প্রথম একদম শুরু থেকে কোনো ভবন তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে গুগল। নকশায় কাচের দেয়াল ও সোলার প্যানেলের চাঁদোয়ার ছাদ সবার নজর কেড়েছে।
* দ্বিতীয় তলায় থাকবে গুগলের কার্যালয়। নিচতলা সাধারণ জনগণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। গুগল আশা করছে, এই কার্যালয় হবে স্থানীয় বাসিন্দাদের মিলনস্থান। বে এরিয়ার প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে একটা ধারা তৈরি হয়েছে—কর্মস্থলেই বাসস্থানের সব সুবিধা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। গুগলের নতুন কার্যালয়েও তেমনটাই থাকবে। ক্যাফেটেরিয়া, জিমনেশিয়াম, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকানগুলোতে গুগলের কর্মীরা যেমন যাবেন, তেমনই সাধারণ মানুষও কোনো অনুমতি ছাড়াই যেতে পারবেন। হাঁটা পথ ভবনের মধ্য দিয়ে চলে গেছে।
* ভবনের ভেতরের আবহাওয়া, বাতাসের মান, এমনকি শব্দও নিয়ন্ত্রণ করার প্রযুক্তি থাকবে এতে।
* ভবনের চারপাশে প্রচুর গাছ লাগানো হবে। গুগলের সংস্কৃতির সঙ্গে মিল রেখে নতুন প্রাঙ্গণেও বাইসাইকেলের ব্যবস্থা রাখা হবে। 

সূত্র: রিকোড

Post A Comment: