প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে কী চুক্তি হবে তা জানা না গেলেও সংবাদমাধ্যমে যেসব বিষয় উঠে আসছে তাতে জাতি উদ্বিগ্ন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ২৩ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টনের ভাসানী মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর বিএনপির এক যৌথসভায় তিনি এই মন্তব্য করেন। স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি সফল করতে ওই সভার আয়োজন করা হয়।


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে কী চুক্তি হবে তা জানা না গেলেও সংবাদমাধ্যমে যেসব বিষয় উঠে আসছে তাতে জাতি উদ্বিগ্ন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

২৩ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টনের ভাসানী মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর বিএনপির এক যৌথসভায় তিনি এই মন্তব্য করেন। স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি সফল করতে ওই সভার আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন সফরে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে কোনো চুক্তি হলে তা দেশের মানুষ মেনে নেবে না বলেও সতর্ক করেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, ‘দেশের অস্তিত্বের প্রশ্নে বিএনপিও আপস করবে না’।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে সমস্যাগুলো আছে, সেগুলো সমাধান করতে হবে। তিনি প্রশ্ন রাখেন, তিস্তা চুক্তি না হলে কোন চুক্তি হবে?’

সরকার রাজনৈতিকভাবে জঙ্গিবাদ ব্যবহার করে বিএনপিকে ঘায়েল করতে চায় বলে অভিযোগ করেন ফখরুল। তিনি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় সব দল ও মতের মানুষকে এক করতে হবে। অথচ অবস্থা এমন যে জঙ্গিবাদ নিয়ে কথা বলা যাবে না। কোনো ঘটনা ঘটলেই বিএনপির ওপর চাপানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।’

অন্যদের মধ্যে ঢাকা মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু প্রমুখ বক্তব্য দেন।

Post A Comment: