বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাষ্ট্রদ্রোহ ও নাশকতার ১১ মামলার শুনানির জন্য ২৮ মার্চ পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন আদালত। খালেদা জিয়া অসুস্থতার কারণে আইনজীবীর মাধ্যমে সময় আবেদন করেন। মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা মঙ্গলবার শেষ বারের মতো আবেদন মঞ্জুর করে নতুন এ দিন ধার্য করেন। এর আগে খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদিন মেজবাহ পরিবর্তন ডটকমকে জানান, আদালতে হাজিরা দেওয়ার ইচ্ছা থাকলেও হটাৎ অসুস্থ হওয়ায় ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) আজ আদালতে আসবেন না। ম্যাডামের পক্ষে সময়ের আবেদন করা হবে। তিনি আরো জানান, ১১ মামলার মধ্যে যাত্রাবাড়ী থানার একটি হত্যা মামলায় অভিযোগপত্র আমলে গ্রহণের জন্য এবং অপর ১০ মামলায় অভিযোগ গঠনের জন্য আদালতে দিন ধার্য রয়েছে। মামলাগুলোর মধ্যে রাষ্ট্রদ্রোহের একটি এবং নাশকতার ১০টি মামলা রয়েছে। ‌এর মধ্যে রয়েছে রাজধানীর দারুস সালাম থানার নাশকতার আটটি, যাত্রাবাড়ী থানার নাশকতার দুটি ও রাষ্ট্রদ্রোহের একটি মামলা।


  বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাষ্ট্রদ্রোহ ও নাশকতার ১১ মামলার শুনানির জন্য ২৮ মার্চ পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন আদালত। খালেদা জিয়া অসুস্থতার কারণে আইনজীবীর মাধ্যমে সময় আবেদন করেন। মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা মঙ্গলবার শেষ বারের মতো আবেদন মঞ্জুর করে নতুন এ দিন ধার্য করেন। এর আগে খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদিন মেজবাহ পরিবর্তন ডটকমকে জানান, আদালতে হাজিরা দেওয়ার ইচ্ছা থাকলেও হটাৎ অসুস্থ হওয়ায় ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) আজ আদালতে আসবেন না। ম্যাডামের পক্ষে সময়ের আবেদন করা হবে।

তিনি আরো জানান, ১১ মামলার মধ্যে যাত্রাবাড়ী থানার একটি হত্যা মামলায় অভিযোগপত্র আমলে গ্রহণের জন্য এবং অপর ১০ মামলায় অভিযোগ গঠনের জন্য আদালতে দিন ধার্য রয়েছে। মামলাগুলোর মধ্যে রাষ্ট্রদ্রোহের একটি এবং নাশকতার ১০টি মামলা রয়েছে। ‌এর মধ্যে রয়েছে রাজধানীর দারুস সালাম থানার নাশকতার আটটি, যাত্রাবাড়ী থানার নাশকতার দুটি ও রাষ্ট্রদ্রোহের একটি মামলা।

এর আগে ২৬ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে  মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন আদালত। হাজির না হলে তার জামিন বাতিল করা হবে বলে জানানো হয়। মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার অভিযোগে গত বছর ২৫ জানুয়ারি আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলাটি দায়ের করা হয়।

যাত্রাবাড়ী থানার মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৩ জানুয়ারি রাতে যাত্রাবাড়ীর কাঠেরপুল এলাকায় গ্লোরি পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রোলবোমা হামলা চালানো হয়। এতে বাসের ২৯ যাত্রী দগ্ধ হন। পরে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ১ ফেব্রুয়ারি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নূর আলম (৬০) নামে এক যাত্রী।

এ ঘটনায় ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করে যাত্রাবাড়ী থানায় মামলা করেন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) কে এম নুরুজ্জামান। ওই বছরের ৬ মে খালেদা জিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন ডিবি পুলিশের পরিদর্শক বশির আহমেদ।

অন্যদিকে ২০১৫ সালে দারুস সালাম থানা এলাকায় নাশকতার অভিযোগে আটটি মামলা দায়ের করা হয়। এ আট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আসামি করা হয়।

গত বছরের বিভিন্ন সময়ে মামলাগুলোর অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। সবগুলো মামলায় খালেদা জিয়াকে পলাতক দেখিয়ে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়। পরে খালেদা জিয়া মামলাগুলোয় আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন।

Post A Comment: