দেশের তৃতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর বাংলালিংককে গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণা করার অভিযোগে জরিমানা করা হয়েছে। বাংলালিংকের এক গ্রাহকের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ১৯ মার্চ রাজধানীর কারওয়ান বাজারে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কার্যালয়ে শুনানি শেষে অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগের উপপরিচালক মো. আবদুল মজিদ অপারেটরটিকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। বাংলালিংক এই জরিমানার টাকা পরিশোধ করেছে এবং অভিযোগকারীর পাওনা ২৫ শতাংশ অর্থাৎ ৬ হাজার ২৫০ টাকা দেওয়ার জন্য গতকাল বুধবার আহম্মদ আলী মিনুকে ফোন দেওয়া হয়েছিল। আজ বৃহস্পতিবার তাকে টাকা দেওয়ার কথা রয়েছে।


দেশের তৃতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর বাংলালিংককে গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণা করার অভিযোগে জরিমানা করা হয়েছে। বাংলালিংকের এক গ্রাহকের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ১৯ মার্চ রাজধানীর কারওয়ান বাজারে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কার্যালয়ে শুনানি শেষে অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগের উপপরিচালক মো. আবদুল মজিদ অপারেটরটিকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। 

বাংলালিংক এই জরিমানার টাকা পরিশোধ করেছে এবং অভিযোগকারীর পাওনা ২৫ শতাংশ অর্থাৎ ৬ হাজার ২৫০ টাকা দেওয়ার জন্য গতকাল বুধবার আহম্মদ আলী মিনুকে ফোন দেওয়া হয়েছিল। আজ বৃহস্পতিবার তাকে টাকা দেওয়ার কথা রয়েছে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, তিন দফায় শুনানি শেষে এই জরিমানা করা হয়েছে। এর আগে প্রথম শুনানি হয় ২৭ ফেব্রুয়ারি। এরপর দ্বিতীয় শুনানি অনুষ্ঠিত হয় ৯ মার্চ এবং এদিন পরের তারিখ ধার্য করা হয় ১৯ মার্চ। শেষ দিনে শুনানিতে ভোক্তার পক্ষ থেকে বাংলালিংকের কাছ থেকে তাদের হেল্প লাইনের কার্যক্রমের বিষয়ে জানতে চাইলে অপারেটরটি তাদের পক্ষে প্রমাণ উপস্থাপনে ব্যর্থ হয়। 

অভিযোগের বিষয়ে জানা গেছে, গত ২০ ফেব্রুয়ারি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের লিখিত অভিযোগ করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাসিন্দা আহম্মদ আলী মিনু নামের এক গ্রাহক। অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, গত ২৭ জানুয়ারি রাত ৮টার সময় বাংলালিংকের হেল্প লাইনের নম্বরে কল করেন। 

মিনু বলেন, কলটি ১ ঘণ্টা ২৯ মিনিট ৫৮ সেকেন্ড ধরে রিং বাজতে থাকার পরেও ও প্রান্ত থেকে কেউ কল রিসিভ করেনি। কিন্তু তার মোবাইলের ব্যালেন্স থেকে ৫৪ টাকা ৭৯ পয়সা চার্জ কাটা হয়। পরে যোগাযোগ করলে বাংলালিংক জানায়, তাদের টাকা ফেরত দেওয়ার কোনো সিস্টেম নেই। এই প্রতারণার অভিযোগ তিনি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে করলে বাংলালিংককে জরিমানা করা হয়।

Post A Comment: