নারী ও শিশু নির্যাতন এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের মামলায় জামিনে থাকা ক্রিকেটার আরাফাত সানি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে দল পেয়েছেন। আসন্ন মৌসুমে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের জার্সি গায়ে দেখা যাবে বাঁ-হাতি এই স্পিনার। দলবদলের দ্বিতীয় ও শেষদিন বিকেলে মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সিসিডিএম কার্যালয়ে আসেন সানি। প্রাইম দোলেশ্বরে নাম নিবন্ধন করেই স্টেডিয়াম ত্যাগ করেন গত মৌসুমে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের হয়ে খেলা বাঁ-হাতি এই স্পিনার।


 নারী ও শিশু নির্যাতন এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনের মামলায় জামিনে থাকা ক্রিকেটার আরাফাত সানি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে দল পেয়েছেন। আসন্ন মৌসুমে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাবের জার্সি গায়ে দেখা যাবে বাঁ-হাতি এই স্পিনার।

দলবদলের দ্বিতীয় ও শেষদিন বিকেলে মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সিসিডিএম কার্যালয়ে আসেন সানি। প্রাইম দোলেশ্বরে নাম নিবন্ধন করেই স্টেডিয়াম ত্যাগ করেন গত মৌসুমে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের হয়ে খেলা বাঁ-হাতি এই স্পিনার।

আরাফাত সানি ছাড়াও প্রাইম দোলেশ্বরে আছেন বাঁ-হাতি ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস, মার্শাল আইয়ুব, সাইদ সরকার, হাবিবুর রহমান জনি ও আব্দুল মজিদ।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নাসরিনের আপত্তিকর ছবি প্রকাশের অভিযোগে গত ৫ জানুয়ারি আরাফাত সানির বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন তার স্ত্রী দাবি করা নাসরিন সুলতানা। এরপর যৌতুক ও নারী নির্যাতন আইনে সানির সাথে তার মা আমিনা বেগমের নামেও আরও দুটি মামলা করেন নাসরিন। 

গত ২২ ফেব্রুয়ারি সাভারের আমিনবাজার থেকে সানিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরবর্তীতে তদন্তের স্বার্থে বিজ্ঞ আদালতের কাছে একদিনের রিমান্ডের আবেদন করে পুলিশ। রিমান্ড মঞ্জুর হলেও নিজের উপর আনা অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং ঘটনাটি অতিরঞ্জিত বলে দাবী করেন সানি। যদিও ওই নারী তার পরিচিত; ব্যাপারটা স্বীকার করেছেন বাংলাদেশের বাঁ-হাতি এই স্পিনার। তার পরদিনই সানিকে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।

১৭ দিন পর সানির জামিন মেলে। গত ১৫ মার্চ রাতে ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান বাঁ-হাতি এই স্পিনার।

Post A Comment: