খুলনা শিপইয়ার্ডে নির্মিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জন্য লার্জ প্যাট্রোল ক্রাফট (বানৌজা) এবং সাবমেরিন হ্যান্ডলিং টাগ বোট (বানৌটা পশুর)’র লঞ্চিং অনুষ্ঠান আজ দুপুরেখুলনা শিপইয়ার্ডে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন
Tug-boat-handling-large-patrol-craft-and-submarines-launching-khusilite-held 

খুলনা শিপইয়ার্ডে নির্মিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জন্য লার্জ প্যাট্রোল ক্রাফট (বানৌজা) এবং সাবমেরিন হ্যান্ডলিং টাগ বোট (বানৌটা পশুর)’র লঞ্চিং অনুষ্ঠান  আজ দুপুরেখুলনা শিপইয়ার্ডে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন


নৌবাহিনী প্রধান ও খুলনা শিপইয়ার্ডের পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান এডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ, ওএসপি, বিসিজিএম, এনডিসি, পিএসসি। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় নিজামউদ্দিন আহমেদ বলেন, খুলনা শিপইয়ার্ড ক্রমান্বয়ে উন্নয়শীল একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। বানৌজা জাহাজ একটি অত্যাধুনিক যুদ্ধ জাহাজ।

দেশের সমুদ্র এলাকায় নিরাপত্তা, সম্পদ আহরণ ও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার জন্য এ ধরণের যুদ্ধ জাহাজ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি বলেন, জাহাজ শিল্পের বিকাশে সরকার পায়রা বন্দরের নিকটবর্তী আরও একটি আধুনিক শিপইয়ার্ড নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। খুলনা শিপইয়ার্ডের সুনাম ও কাজের গতিশীলতা ধরে রাখতে তিনি শিপইয়ার্ডে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আšতরিকতার সাথে কাজ করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাগেরহাট-৩ আসনের সংসদ সদস্য তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান ও সহকারী নৌপ্রধান(এম) রিয়ার এডমিরাল এম শফিউল আজম(ই) এনইউপি, এনডিসি, পিএসসি। স্বাগত বক্তৃতা করেন খুলনা শিপইয়ার্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কমডোর কাজী কামরুল হাসান।
এ সময় খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামন সহ উর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা এবং খুলনা শিপইয়ার্ড লি. এর কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিকরা উপস্থিত ছিলেন।

বানৌজা যুদ্ধ জাহাজের দৈর্ঘ্য ৬৪.২০ মিটার ও প্রস্থ ৯.০০ মিটার। এর আকার আয়তন অপেক্ষাকৃত কিছুটা ছোট হলেও জাহাজটির সক্ষমতা অধুনা বিশ্বে ব্যবহৃত State of the Art Technology সম্বলিত যুদ্ধ জাহাজের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। এ জাহাজে রয়েছে আধুনিক সামরিক সক্ষমতা যেমন Surface Target এর বিরুদ্ধে ব্যবহারের জন্য ৭৬ মি.মি এবং ৩০ মি.মি গান, সাবমেরিনের বিরুদ্ধে ব্যবহারের জন্য Torpedo Launcher এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে এ সব অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহারের জন্য অত্যাধুনিক ঝঙঘঅজ, SONAR, Serveillance Radar ও কমব্যাট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম।

Post A Comment: