মুন্সীগঞ্জে একটি মাজারে ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৬ জন আহত হন। তারা হলেন- হাবিবুর রহমান (৫০), ইমন (২০), আব্দুল মালেক (২০), মিরাজ (২২), মহিউদ্দিন (৩০) ও মো: সোহেল (৩৪)। বুধবার সন্ধ্যায় শহরের উপকণ্ঠ মুক্তারপুর ব্রিজ সংলগ্ন মুসরীখোলা মাজারে এই ঘটনা ঘটে।
মুন্সীগঞ্জে মাজারে ভাংচুর, খেলনা বন্দুক উদ্ধার 

মুন্সীগঞ্জে একটি মাজারে ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৬ জন আহত হন। তারা হলেন- হাবিবুর রহমান (৫০), ইমন (২০), আব্দুল মালেক (২০), মিরাজ (২২), মহিউদ্দিন (৩০) ও মো: সোহেল (৩৪)। বুধবার সন্ধ্যায় শহরের উপকণ্ঠ মুক্তারপুর ব্রিজ সংলগ্ন মুসরীখোলা মাজারে এই ঘটনা ঘটে।


আহত ইমন হোসেন বলেন, ‘বাইরে থেকে কিছু লোক মাজারে ভিতরে প্রবেশ করার চেষ্টা করে। তাদেরকে নিষেধ করা হলে তর্কাতর্কি হয়। একপর্যায়ে তারা মাজারে প্রবেশ করে হট্টগোল শুরু করে। বাধা দিলে জঙ্গি আখ্যা দিয়ে আমাদের মারতে থাকে। তারা মাজার ভাংচুর করে।

আহত মো: মহিউদ্দিন বলেন, সন্ধ্যায় মাজারে গিয়ে দেখি কিছু লোক সেখানে বসে মাদকদ্রব্য সেবন করছে। এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালে তারা আমাকে অপবিত্র বলে ধিক্কার দেয় ও মারধর করে।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. মফিজুর রহমান জানান, মাজারের ভিতরে কিছু লোক হুক্কা খাচ্ছিল। স্থানীয় কয়েকজনের সাথে তাদের কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে এবং মাজারে কিছু ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ২টি এয়ারগান ও কিছু খেলনা বন্দুক পাওয়া গেছে।

তিনি জানান মাজারের ফ্রিজ, নয়টি সিসি ক্যামেরা, জানালার কাচ ও ঘরের আসবাবপত্রসহ অনেক কিছু ভাংচুর করা হয়েছে।

এ ঘটনায় মাজারে থাকা ৪ জন ও স্থানীয় বাসিন্দা সোহেলকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আটক করা হয়েছে।

Post A Comment: