মৌলভীবাজারের দুই ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযান চালাতে প্রয়োজনে সেনাবাহিনীকে নামানো হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আছাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বুধবার (২৯ মার্চ) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।
মৌলভীবাজারে প্রয়োজনে সেনাবাহিনী নামানো হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী 


মৌলভীবাজারের দুই ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযান চালাতে প্রয়োজনে সেনাবাহিনীকে নামানো হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আছাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বুধবার (২৯ মার্চ) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “মৌলভীবাজারের যে জায়গা দুটি ঘিরে রাখা হয়েছে, সেখান নারী জঙ্গি আছে বলে সন্দেহ করো হচ্ছে। সেখানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা রয়েছে। ঢাকা থেকে সোয়াট ও বোম ডিসপোজাল ইউনিট মৌলভীবাজারের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে। প্রয়োজনে সেনাবাহিনী নামানো হবে।”

মঙ্গলবার (২৮ মার্চ) গভীর রাত থেকে মৌলভীবাজার শহরের বড়হাট ও সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের সরকার বাজারের কাছে নাসিরপুর গ্রামের ওই দু’টি জঙ্গি আস্তানা ঘেরাও করে রেখেছে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি) ও পুলিশ সদস্যরা। বড়হাটের আস্তানাটি একটি ডুপ্লেক্স বাড়িতে, আর নাসিরপুরের আস্তানাটি একটি একতলা বাড়িতে।

বুধবার (২৯ মার্চ) সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১০টার মধ্যেও দু’টি জঙ্গি আস্তানায় বিস্ফোরণ ও গুলির শব্দ শোনা যায়। সাড়ে ১০টার দিকে বড়হাটের ‍আস্তানার ভেতরে বিকট শব্দে তিনটি গ্রেনেড বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গিরা।

জানা গেছে, দু’টি বাড়ি মালিকই এক লন্ডনপ্রবাসী। তার নাম সাইফুল ইসলাম। তিনি সপরিবারে লন্ডনে থাকেন। সাইফুলের বাড়ি দু’টি দেখভাল করেন আতিক নামে তার এক আত্মীয়।

Post A Comment: