শামীম আহমেদ, বরিশাল।। বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীরের জন্মবার্ষিকী আজ । বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার রহিমগঞ্জ গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৪৯ সালের ৭ মার্চ জন্মগ্রহন করেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর।
Bir-Captain-Mohiuddin-Jahangir-birthday-today




শামীম আহমেদ, বরিশাল।। বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীরের জন্মবার্ষিকী আজ । বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার রহিমগঞ্জ গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৪৯ সালের ৭ মার্চ জন্মগ্রহন করেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর।


তার পিতা মোতালেব হাওলাদার ছিলেন একজন কৃষক,আর মা সাফিয়া বেগম ছিলেন গৃহিনী।
পিতার আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারনে মাত্র সাড়ে তিনবছর বয়সে জেলার মুলাদী উপজেলার পাতারচর গ্রামের মামা বাড়িতে থাকতে হয় তাকে। ১৯৫৩ সালে শিক্ষাজীবনের সূচনা করেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর। ১৯৬৪ সালে তিনি বিজ্ঞান বিভাগে মুলাদী মাহমুদজান পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ম্যাট্রিকুলেশন পাস করেন। তিনি বরিশাল বিএম কলেজ থেকে ১৯৬৬ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিসংখ্যান বিভাগে অধ্যয়নরত অবস্থায় ১৯৬৭ সালে পাকিস্তানি মিলিটারি একাডেমীতে ক্যাডেট হিসেবে যোগ দেন।
 ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেন জাহাঙ্গীর। রাজশাহী জেলার চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্ত এলাকায় ৭নং সেক্টরের মুক্তিবাহিনীর অধিনায়ক হিসেবে যুদ্ধ পরিচালনা করেন। ১৪ ডিসেম্বর প্রত্যুষে রেহাইচরের মধ্যদিয়ে মহানন্দা নদী পার হওয়ার পর পাক সেনাদের সাথে সম্মুখ যুদ্ধে ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর শহীদ হন। ১৫ ডিসেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জের ঐতিহাসিক সোনা মসজিদ প্রাঙ্গনে সমাহিত করা হয় ক্যাপ্টেন জাহাঙ্গীরের মরদেহ।
১৯৭৩ সালের ১৫ই ডিসেম্বরে সরকারি গেজেট নোটিফিকেশন অনুযায়ী বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধে অংশগ্রহণকারীদের বীরত্বপূর্ণ আত্মত্যাগ ও অদম্য সাহসিক অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ জাতির সেরা বীর সন্তানদেরকে শ্রেষ্ঠ রাষ্ট্রীয় সম্মান ও উপাধিতে ভূষিত করা হয়। এদের মধ্যে মরণোত্তর সাতজন সর্বশ্রেষ্ঠ উপাধি ‘বীরশ্রেষ্ঠ’, ৬৮ জন ‘বীর উত্তম’, ১৭৫ জন ‘বীর বিক্রম’ এবং ৪২৬ জন ‘বীর প্রতীক’ খেতাবে ভূষিত হন।
এ বীর সৈনিকের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বাবুগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মোনাজাতের আয়োজন করা হয়েছে।

Post A Comment: