নিয়মিত ৯০০ তম দলের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইমামদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জাতীয় শ্রেষ্ঠ ইমাম সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আজ বিকেলে খুলনা ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে নিয়মিত ৯০০ তম দলের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইমামদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জাতীয় শ্রেষ্ঠ ইমাম সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আজ বিকেলে খুলনা ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত


ছিলেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সংসদ সদস্য বলেন, একজন ইমাম ও খতিবের সমাজে অনেক দায়িত্ব রয়েছে। ইমামরা হলেন সমাজের নেতা, তাদের কথা মানুষ অনুসরণ করেন। দেশ ও সমাজকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে ইমামরাও অবদান রাখতে হবে। ইসলামে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের কোন স্থান নেই। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আলেম-ওলামা, ইমাম-মোয়াজ্জিনরা সমাজের নেতা হিসেবে সন্ত্রাস ও জঙ্গিতৎপরতা রোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন। এ প্রশিক্ষণ বা¯তব জীবনে কাজে লাগাতে হবে এবং মাঠ পর্যায়ে তা প্রয়োগ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে। পদ্মা সেতু ও আধুনিক রেললাইন নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে এ আঞ্চলের উন্নয়নের চাকা আরো গতিশীল হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন কেএমপি’র ডেপুটি পুলিশ কমিশনার মোঃ আব্দুল্লাহ আরেফ পিপিএম, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক মোঃ লোকমান হোসেন এবং জাতীয় পর্যায়ে পুরস্কারপ্রাপ্ত শ্রেষ্ঠ ইমাম মুফতি নাঈম আশরাফ। ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমির উপপরিচালক শাহীন বিন জামান এতে সভাপতিত্ব করেন। স্বাগত বক্তৃতা করেন ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমির স্বাস্থ্য প্রশিক্ষক-কাম-মেডিকেল অফিসার এ কে এম মুজতবা।

পরে প্রধান অতিথি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জাতীয় শ্রেষ্ঠ ইমাম ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইমামদের মাঝে সনদপত্র বিতরণ করেন।

৪৫ দিনব্যাপী এ প্রশিক্ষণে খুলনা বিভাগের ৮টি জেলা এবং ঢাকা বিভাগের ২টি জেলার মোট ৯৫জন ইমাম অংশগ্রহণ করেন।

Post A Comment: