বঙ্গোপসাগরের সেন্টমার্টিন উপকূল থেকে ৮ বাংলাদেশি জেলেকে ধরে নিয়ে গেছে মিয়ানমারের নৌবাহিনীর একটি দল ৯ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে সেন্টমার্টিনের দক্ষিণ-পশ্চিম দিকের বঙ্গোপসাগর থেকে তাদের ধরে নিয়ে যায় মিয়ানমারের নৌবাহিনী। অপহৃত জেলেরা হলেন- টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপ বাজার পাড়া এলাকার মৃত. হাবিবুর রহমানের ছেলে আব্দু রশিদ মাঝি (৪০), জালিয়াপাড়া এলাকার মৃত. হাসানের ছেলে সৈয়দ করিম (৪০), কোনার পাড়া এলাকার নূরুল আমিনের ছেলে নূর হাসান (২৮), ক্যাম্প পাড়া এলাকার আব্বাসের ছেলে মোহাম্মদ উল্লাহ (৫৫), মাঝার পাড়া এলাকার ফজলুলের ছেলে জামাল হোসেন (৩৭), মিস্ত্রি পাড়া এলাকার মো. কালুর ছেলে দিল মোহাম্মদ (৩৬) ও ডাঙ্গর পাড়া এলাকার জাফরের ছেলে সাদেক (৩৫), একই এলাকার ফজল আহাম্মদের ছেলে জাকের (৫৫)। স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে সাগরে মাছ শিকারকালে মিয়ানমার নৌবাহিনীর একটি জাহাজ এসে ধাওয়া করে তাদের। এ সময় জাহাজের ধাক্কায় জেলেদের ট্রলারটি ডুবে যায়। এ সময় ৮ জেলেকে ধরে নিয়ে যায় মিয়ানমারের নৌবাহিনী। টেকনাফ ২ বর্ডার র্গাড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আবুজার আল জাহিদ জানান, সাগর থেকে জেলে ধরে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি শোনার পর দোভাষী দিয়ে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তারা ৮ জেলেকে ধরে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তবে শুক্রবার সকালে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন।


 বঙ্গোপসাগরের সেন্টমার্টিন উপকূল থেকে ৮ বাংলাদেশি জেলেকে ধরে নিয়ে গেছে মিয়ানমারের নৌবাহিনীর একটি দল। ৯ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে সেন্টমার্টিনের দক্ষিণ-পশ্চিম দিকের বঙ্গোপসাগর থেকে তাদের ধরে নিয়ে যায় মিয়ানমারের নৌবাহিনী।


অপহৃত জেলেরা হলেন- টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপ বাজার পাড়া এলাকার মৃত. হাবিবুর রহমানের ছেলে আব্দু রশিদ মাঝি (৪০), জালিয়াপাড়া এলাকার মৃত. হাসানের ছেলে সৈয়দ করিম (৪০), কোনার পাড়া এলাকার নূরুল আমিনের ছেলে নূর হাসান (২৮), ক্যাম্প পাড়া এলাকার আব্বাসের ছেলে মোহাম্মদ উল্লাহ (৫৫), মাঝার পাড়া এলাকার ফজলুলের ছেলে জামাল হোসেন (৩৭), মিস্ত্রি পাড়া এলাকার মো. কালুর ছেলে দিল মোহাম্মদ (৩৬) ও ডাঙ্গর পাড়া এলাকার জাফরের ছেলে সাদেক (৩৫), একই এলাকার ফজল আহাম্মদের ছেলে জাকের (৫৫)।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে সাগরে মাছ শিকারকালে মিয়ানমার নৌবাহিনীর একটি জাহাজ এসে ধাওয়া করে তাদের। এ সময় জাহাজের ধাক্কায় জেলেদের ট্রলারটি ডুবে যায়। এ সময় ৮ জেলেকে ধরে নিয়ে যায়  মিয়ানমারের নৌবাহিনী। 

টেকনাফ ২ বর্ডার র্গাড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আবুজার আল জাহিদ জানান, সাগর থেকে জেলে ধরে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি শোনার পর দোভাষী দিয়ে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তারা ৮ জেলেকে ধরে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তবে শুক্রবার সকালে তাদের ছেড়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন। 

Post A Comment: