রাঙামাটিতে বাড়ি নির্মাণের সময় পাশের পাহাড় ধসে দেয়াল চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই বাড়ির মালিক ও দুই নির্মাণ শ্রমিকসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও একজন নির্মাণ শ্রমিক আহত হয়েছেন। ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার বিকাল পাঁচটার দিকে শহরের কলেজ গেট এলাকার মন্ত্রিপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ সময় স্থানীয়দের সহায়তায় মো. ফারুক (৪০) নামে এক নির্মাণ শ্রমিককে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। নিহতরা হলেন- বাড়ির মালিক মো. শামসুল আলমকে (৪০) এবং অপর দুই নির্মাণ শ্রমিক কালু মালাকার (৩৪) ও হানিফ ফরাজিকে (৪২)। স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকায় পাহাড়ের খাদে নির্মিত দ্বিতল বিশিষ্ট একটি পাকাবাড়ির পেছনে পাহাড় ঘেঁষে গর্ত খুঁড়ে আরেকটি কক্ষ নির্মাণের কাজ চলছিল। এ সময় পাশের পাহাড় ধসে পাকা সীমানা প্রাচীর চাপা পড়েন বাড়ির মালিক ও তিন নির্মাণ শ্রমিক। খবর পেয়ে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস তাৎক্ষণিকভাবে উদ্ধারের জন্য দুর্ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার কাজ চালায়। এ দিকে চাপা পড়া চারজনকে উদ্ধারের পর অভিযান সমাপ্ত করেছেন উদ্ধারকর্মীরা। রাঙ্গামাটি কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 রাঙামাটিতে বাড়ি নির্মাণের সময় পাশের পাহাড় ধসে দেয়াল চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই বাড়ির মালিক ও দুই নির্মাণ শ্রমিকসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও একজন নির্মাণ শ্রমিক আহত হয়েছেন।

১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার বিকাল পাঁচটার দিকে শহরের কলেজ গেট এলাকার মন্ত্রিপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

এ সময় স্থানীয়দের সহায়তায় মো. ফারুক (৪০) নামে এক নির্মাণ শ্রমিককে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নিহতরা হলেন- বাড়ির মালিক মো. শামসুল আলমকে (৪০) এবং অপর দুই নির্মাণ শ্রমিক কালু মালাকার (৩৪) ও হানিফ ফরাজিকে (৪২)।

স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকায় পাহাড়ের খাদে নির্মিত দ্বিতল বিশিষ্ট একটি পাকাবাড়ির পেছনে পাহাড় ঘেঁষে গর্ত খুঁড়ে আরেকটি কক্ষ নির্মাণের কাজ চলছিল। এ সময় পাশের পাহাড় ধসে পাকা সীমানা প্রাচীর চাপা পড়েন বাড়ির মালিক ও তিন নির্মাণ শ্রমিক।

খবর পেয়ে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস তাৎক্ষণিকভাবে উদ্ধারের জন্য দুর্ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার কাজ চালায়।

এ দিকে চাপা পড়া চারজনকে উদ্ধারের পর অভিযান সমাপ্ত করেছেন উদ্ধারকর্মীরা।

রাঙ্গামাটি কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

Post A Comment: