ভারতের বেঙ্গালুরুর মাগাডিতে ১০-বছর বয়সী এক কিশোরীকে বলি দেয়ার অভিযোগে তিন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পক্ষাঘাতগ্রস্ত এক ব্যক্তির ‘রোগমুক্তির’ উদ্দেশ্য নিয়ে এক ওঝার পরামর্শে এই হত্যাকাণ্ড চালানো হয়।
 10-year-old-girl-in-India-sacrifice


 ভারতের বেঙ্গালুরুর মাগাডিতে ১০-বছর বয়সী এক কিশোরীকে বলি দেয়ার অভিযোগে তিন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পক্ষাঘাতগ্রস্ত এক ব্যক্তির ‘রোগমুক্তির’ উদ্দেশ্য নিয়ে এক ওঝার পরামর্শে এই হত্যাকাণ্ড চালানো হয়।


চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী আয়েষাকে ‘বলি ‘ দিয়ে তার কাকাকে সুস্থ করে তোলা ছিল এই বলির উদ্দেশ্য। আর সে জন্যই খুন হতে হল ১০ বছরের ছোট্ট আয়েষাকে।

অভিযুক্তরা পুলিশকে জানিয়েছে, এক তান্ত্রিকই বলি দেওয়ার আদেশ দিয়েছিলেন। তার কথা মতো আয়েষার কাকা ওয়াসিল, ফুফু রাসিদুন্নিসা, চাচী তাজ এবং এক নাবালকও এই হত্যার ছক কষেছিল। ওয়াসিলের ভাই মুহাম্মদ রফিক গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে পক্ষাঘাতে ভুগছিলেন। তাকে সারিয়ে তোলার জন্য ওই তান্ত্রিকই তাকে বলেন কোনও একটি মেয়েকে ‘বলি’ দিলে তার ভাইয়ের রোগ সেরে যাবে।

গত ১ মার্চ কাকা মুহাম্মদ ওয়াসিল আয়েষাকে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার নাম করে হোসাহাল্লির এক সৌধে নিয়ে যায়। সেখানে গিয়ে তন্ত্রসাধনা করে। এর পর তার গলা কেটে দেয় ওয়াসিল। হত্যা করার পর আয়েষার দেহটি মুড়ে ফেলে দেয় পাশের এক জঙ্গলে।

এই ঘটনার পর থেকে আয়েষাকে খুঁজে না পাওয়া গেলে পরিবারের তরফে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়। নিজের ওপর থেকে সন্দেহ এড়াতে মুহাম্মদ ওয়াসিলও পরিবারের সঙ্গে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করতে যায়। তারপরই পুলিশি তদন্তে উঠে আসে এই হত্যাকাণ্ড।

Post A Comment: