এখন তিনি ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টিতে বিশ্ব র‍্যাংকিংয়ের এক নম্বর বোলার। কেন? সেটাই অকল্যান্ডে নিজেদের মাঠে হাড়ে হাড়ে টের পেল নিউজিল্যান্ড। ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করে লেগ স্পিনার ইমরান তাহির যে একেবারে ধ্বংসই করে দিলেন কিউইদের!

এখন তিনি ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টিতে বিশ্ব র‍্যাংকিংয়ের এক নম্বর বোলার। কেন? সেটাই অকল্যান্ডে নিজেদের মাঠে হাড়ে হাড়ে টের পেল নিউজিল্যান্ড। ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করে লেগ স্পিনার ইমরান তাহির যে একেবারে ধ্বংসই করে দিলেন কিউইদের! 

নিউজিল্যান্ডকে ধ্বংস করে দিলেন তাহির!

৩.৫ ওভারে ২৪ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন তাহির। আর দক্ষিণ আফ্রিকা শুক্রবার সিরিজের একমাত্র টি-টুয়েন্টি ম্যাচটি জিতেছে ৭৮ রানে।

৩৮ ছুঁই ছুঁই বয়সেও তাহির এক বিস্ময়। হাশিম আমলার ৬২ রানের ওপর ভর করে ৬ উইকেটে ১৮৫ রান তুলেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। এরপর শুরু করে ধুঁকতে ধুঁকতে ১৪.৫ ওভারে ১০৭ রানেই শেষ নিউজিল্যান্ড।
ইডেন পার্কে পেসার ক্রিস মরিস প্রথম ২ উইকেট নিলেন। ১০ রানে ২ উইকেট হারায় কিউইরা। মরিস আর উইকেট পাননি। ব্যাটন হাত বদল হয়েছে। নতুন ফাস্ট বোলার আন্দাইল ফেলুকোয়াও ১৯ রানে নিলেন ৩ উইকেট। তবে দুই ওভারে দুটি করে উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডের সব প্রতিরোধ ভেঙেছেন তাহির। ম্যান অব দ্য ম্যাচ তিনি। টম ব্রুসের ৩৩ ও টিম সাউদির ২০ ছাড়া বলার মতো কিছু নেই কিউইদের ব্যাটিংয়ে।

সফরের প্রথম এই ম্যাচে টস হেরে ব্যাট করতে নামল দক্ষিণ আফ্রিকা। কুইন্টন ডি কক শূন্য হাতে ফিরলেন। তবে আমলা ব্যাট চালিয়ে গেলেন। ৪৩ বলে ৯ চার ও ১ ছক্কায় ৬২ করে থামেন তিনি। তাকে সঙ্গ দিয়ে অধিনায়ক ফ্যাফ ডু প্লেসি করেন ৩৬ রান। বার্থডে বয় এবি ডি ভিলিয়ার্স করলেন ২৬ রান। ২৯ রান জেপি ডুমিনির। কম বলে বেশি রানের এইসব ইনিংস প্রোটিয়াদের দিয়েছিল জেতার মতো সংগ্রহ। কিন্তু এক তাহিরের সামনেই তো দাঁড়াতে পারলো না কিউইরা! ৩১ ম্যাচে ৫০ উইকেটের মাইলফলকে পৌঁছে জয় উদযাপন করেছেন তাহির।

Post A Comment: