সকালের নাস্তা হোক কিংবা বিকেলের স্ন্যাক্স, অথবা বাচ্চাদের টিফিন বা অফিসের লাঞ্চে স্যান্ডউইচ খাবারটি বেশ প্রচলিত। বাচ্চাদের টিফিন নিয়ে মায়েদের চিন্তার শেষ নেই। ঝটপট টিফিন হিসেবে তৈরি করে দিতে পারেন দইয়ের এই স্যান্ডউইচটি। স্বাস্থ্যকর এই খাবারটি খেতে পছন্দ করবে যে কেউ। চলতে পারে অফিসের হালকা লাঞ্চেও।


  সকালের নাস্তা হোক কিংবা বিকেলের স্ন্যাক্স, অথবা বাচ্চাদের টিফিন বা অফিসের লাঞ্চে স্যান্ডউইচ খাবারটি বেশ প্রচলিত। বাচ্চাদের টিফিন নিয়ে মায়েদের চিন্তার শেষ নেই। ঝটপট টিফিন হিসেবে তৈরি করে দিতে পারেন দইয়ের এই স্যান্ডউইচটি। স্বাস্থ্যকর এই খাবারটি খেতে পছন্দ করবে যে কেউ। চলতে পারে অফিসের হালকা লাঞ্চেও। 

উপকরণ:
৩/৪ কাপ ঘন টকদই (গ্রিক ইয়োগার্ট) 
১/৪ কাপ মেয়নিজ
১/২ চা চামচ গোলমরিচের গুঁড়ো 
১/৪ কাপ গাজর কুচি
১/৪ কাপ বাঁধাকপি কুচি
১/৪ কাপ ক্যাপসিকাম কুচি
১/২ চা চামচ আদা কুচি
১/৪ কাপ কর্ন
৬ টুকরো পাউরুটি
২ চা চামচ মাখন
১ চা চামচ তিল
লবণ

প্রণালী:
১। একটি পাত্রে ঘন টকদই,  মেয়নিজ দিয়ে ভালো করে মেশান।
২। এরপর এতে গোল মরিচের গুঁড়ো, লবণ, গাজর কুচি, বাঁধাকপি কুচি, ক্যাপসিকাম কুচি, কর্ন, আদা কুচি দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন।
৩। এবার পাউরুটির দুইপাশ কেটে নিন।  পাউরুটির মাঝে টকদইয়ের মিশ্রণটি দিয়ে সমান করে ছড়িয়ে দিন। এর উপর আরেকটি পাউরুটি দিয়ে ঢেকে দিন।
৪। প্যান বা তাওয়ায় মাখন দিয়ে দিন। মাখন গলে আসলে এতে কিছু তিল দিয়ে দিন। এর উপর পাউরুটি  হাত দিয়ে নাড়ুন। পাউরুটির একপাশে মাখন এবং তিল লেগে  যাওয়া পর্যন্ত (ভিডিও অনুযায়ী) নাড়তে থাকুন।  
৫। এরপর আবার মাখন এবং তিল দিয়ে দিন। এর উপর পাউরুটির অন্যপাশ  দিয়ে নাড়ুন।
৬। ব্যস তৈরি হয়ে গেলো দই স্যান্ডউইচ। হুটহাট অতিথি বলুন কিংবা বাচ্চাদের টিফিনে ঝটপট তৈরি করে পারেন দই স্যান্ডউইচ।

 পুরো রেসিপিটি দেখে নিন ভিডিওতে।

Post A Comment: