পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ভোলা বারের প্রবীণ আইনজীবী মরহুম এডভোকেট দেলোয়ার হোসেনের ছেলে ইশরাত হোসেন রিপন স্ত্রী মুন্নি বেগম এবং তাদের দুই জমজ মেয়ে ইতু ও রিতু (৯) কে নিয়ে তার বাপের বাড়ী চরফ্যাশনের দক্ষিণ আইচা থানার চর মানিকা ইউনিয়নের নুরুল হাওলাদারের বাড়ীতে বেড়াতে যান।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ভোলা বারের প্রবীণ আইনজীবী মরহুম এডভোকেট দেলোয়ার হোসেনের ছেলে ইশরাত হোসেন রিপন স্ত্রী মুন্নি বেগম এবং তাদের দুই জমজ মেয়ে ইতু ও রিতু (৯) কে নিয়ে তার বাপের বাড়ী চরফ্যাশনের দক্ষিণ আইচা থানার চর মানিকা ইউনিয়নের নুরুল হাওলাদারের বাড়ীতে বেড়াতে যান।


বেড়াতে গিয়ে লাশ হলো দুইবোন বেড়াতে গিয়ে লাশ হলো দুইবোনওই বাড়ীতে দুপুর বেলা গোসল করার জন্য তাদের খালা ইতু ও রিতুকে ডাকেন। তখন তারা বলেন যে পুকুরের পানিতে গোসল করবেন। তখন তাদের খালা বলেন তোরা যা আমি আসছি। কিন্তু ইতু ও রিতুর খালার ওই কথা আর মনে নেই।

হঠাৎ যখন তাদের কথা মনে হলো তখন পুকুরের পাড়ে এসে দেখেন যে ইতু আর রিতু পুকুরের পানিতে হাবু-ডুবু খাচ্ছে। ওদের এ অবস্থা দেখে তিনি সেখানেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তার জ্ঞান ফিরে পাওয়ার পর তিনি বিষয়টি পরিবারকে জানান। তখন পরিবারের লোকজন দীর্ঘ এক ঘণ্টা পুকুরে খোজা-খুজির পর এক জনের লাশ পাওয়া যায়। কিন্তু অপর জনের লাশা পাওয়া যায় না। তখন পরিবারের লোকজন চরফ্যাশনের দমকল বাহিনীকে খবর দেন। দমকল বাহিনী দীর্ঘ ৪ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে পুকুরের পুরো পানি নিস্কাশন করে বিকেল ৫টার দিকে অপরজনের লাশ পুকুর থেকে উদ্ধার করে।

চরফ্যাশন দমকল বাহিনীর স্টেশন অফিসার আ. রশিদ জানান ঘটনার সত্যাতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে তারা এসে ৪ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে তাদের লাশ পুকুর থেকে উদ্ধার করেন।

দুই বোন ভোলা সরকারী গার্লস স্কুলের ৩য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী। তাদের শোকে পুরো পরিবার পাগল প্রায়। ইতু ও রিতুর পানিতে ডুবে মর্মান্তিভাবে মারা যাওয়ায় পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

Post A Comment: