শিশুর গরম খাবারকে ঠান্ডা করা নিয়ে চিন্তিত আপনি? বাতাসের মাধ্যমে ঠান্ডা করা ছাড়াও আরো অনেক উপায় আছে খাবার ঠান্ডা করার। শিশুকে গরম খাবার দেয়ার পূর্বে নিজে পরীক্ষা করে নিন খাবারটি শিশু খেতে পারবে কিনা অর্থাৎ খাবারের তাপ শিশুর সহ্য হবে কিনা। না হলে শিশুর মুখ পুড়ে যেতে পারে। শিশুর খাবার যদি ওভেনে গরম করেন তাহলে ওভেন থেকে নামিয়ে খুব ভালো করে নেড়ে নিন। তবে শিশুর খাবার চুলায় গরম করাই ভালো। বাতাস ছাড়াও শিশুর খাবার ঠান্ডা করার কিছু কৌশলের বিষয়েই জানবো আজ।
Some-baby-foods-cooling-techniques 

শিশুর গরম খাবারকে ঠান্ডা করা নিয়ে চিন্তিত আপনি? বাতাসের মাধ্যমে ঠান্ডা করা ছাড়াও আরো অনেক উপায় আছে খাবার ঠান্ডা করার। শিশুকে গরম খাবার দেয়ার পূর্বে নিজে পরীক্ষা করে নিন খাবারটি শিশু খেতে পারবে কিনা অর্থাৎ খাবারের তাপ শিশুর সহ্য হবে কিনা। না হলে শিশুর মুখ পুড়ে যেতে পারে।  শিশুর খাবার যদি ওভেনে গরম করেন তাহলে ওভেন থেকে নামিয়ে খুব ভালো করে নেড়ে নিন। তবে শিশুর খাবার চুলায় গরম করাই ভালো। বাতাস ছাড়াও শিশুর খাবার ঠান্ডা করার কিছু কৌশলের বিষয়েই জানবো আজ। 

 
১। ফ্রিজে রাখুন
শিশুর জন্য তৈরি করা খাবার যদি খুব গরম থাকে এবং খাওয়ার সময় যদি হয়ে যায় তাহলে শিশুর খাবারের পাত্রটি ফ্রিজের ভেতরে রাখুন কয়েক মিনিটের জন্য। এর মধ্যে আপনার সন্তানকে খাওয়ানোর জন্য প্রস্তুত করুন। তারপর ফ্রিজ থেকে খাবার বের করে শিশুর সামনে পরিবেশন করুন। খাবার যেন একেবারে ঠান্ডা না হয়ে যায় সেজন্য খুব বেশি সময় ধরে ফ্রিজে রাখবেন না।

২। কাঁটাচামচ
খাবার ঠান্ডা করার আরেকটি উপায় হচ্ছে কাঁটাচামচের ব্যবহার। বিশেষ করে পাস্তা, নুডুলস বা পনির জাতীয় খাবার ঠান্ডা করে খাওয়ার ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারেন কাঁটাচামচ।
  
৩। বরফ
খুব বেশি গরম খাবার ঠান্ডা করার জন্য বরফ ব্যবহার করতে পারেন। স্যুপ,  গরম পানীয়  এমনকি ম্যাকারনি এবং পনির ঠান্ডা করার জন্যও বরফ ব্যবহার করতে পারেন।

৪। সস
শিশুর গরম খাবারকে ঠান্ডা করার জন্য আরেকটু সৃজনশীল উপায় ব্যবহার করা যায়। এটা হতে পারে খাবারে কিছু যোগ করা অথবা খাবারের কোন অংশ এক সাথে গরম না করা যেমন- পাস্তা বা নুডুলস রান্না করার সময় সস ব্যবহার না করা। পাস্তা সিদ্ধ হয়ে যাওয়ার পরে পরিবেশনের পূর্বে সস যোগ করে শিশুকে খেতে দিন ।

৫। ঠান্ডা ফল ও দুধ  
অনেক শিশুরাই ওটমিল পছন্দ করে বলে রান্নার পরে তারা আর ধৈর্য ধরে থাকতে পারেনা। এক্ষেত্রে ধোঁয়া ওঠা গরম ওটমিল এর মধ্যে ফ্রিজে সংরক্ষিত কয়েকটি স্ট্রবেরি যোগ করুন এবং এর পরে ফ্রিজের ঠান্ডা দুধ যোগ করুন। এতে করে গরম ওটমিল খুব সহজেই ঠান্ডা হয়ে যাবে।

৬। পানি
শিশুর গরম খাবার ঠান্ডা করার আরেকটি সহজ উপায় হচ্ছে পানি ব্যবহার করা। এজন্য একটি বড় বাটিতে ঠান্ডা পানি নিয়ে এর মধ্যে শিশুর জন্য তৈরি করা গরম খাবারের প্লেট বা বাটিটি রেখে দিন কিছুক্ষণ। দেখবেন খুব তাড়াতাড়ি খাবার ঠান্ডা হয়ে গেছে।

Post A Comment: