টেস্ট সিরিজে তারা অসহায় আত্মসমর্পন করেছে অস্ট্রেলিয়ার কাছে। হয়েছে হোয়াইটওয়াশ। এবার স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের পালা। তার আগে প্রস্তুতিতে নেমে যেন আগুন জ্বালাল পাকিস্তান দল! দারুণ ব্যাটিং আর বিধ্বংসী বোলিংয়ে প্রতিপক্ষ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া একাদশকে স্রেফ উড়িয়ে দিল তারা। মঙ্গলবার ব্রিসবেনের অ্যালান বর্ডার ফিল্ডে ৫০ ওভারের ম্যাচটি পাকিস্তান জিতেছে ১৯৬ রানে।
 Pakistan-s-big-win-in-Australia


টেস্ট সিরিজে তারা অসহায় আত্মসমর্পন করেছে অস্ট্রেলিয়ার কাছে। হয়েছে হোয়াইটওয়াশ। এবার স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের পালা। তার আগে প্রস্তুতিতে নেমে যেন আগুন জ্বালাল পাকিস্তান দল! দারুণ ব্যাটিং আর বিধ্বংসী বোলিংয়ে প্রতিপক্ষ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া একাদশকে স্রেফ উড়িয়ে দিল তারা। মঙ্গলবার ব্রিসবেনের অ্যালান বর্ডার ফিল্ডে ৫০ ওভারের ম্যাচটি পাকিস্তান জিতেছে ১৯৬ রানে।


আগে ব্যাট করে পাকিস্তান তুলেছিল ৭ উইকেটে ৩৩৪ রান। জবাবে, ৩৬.২ ওভারেই তারা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া একাদশকে ১৩৮ রানেই গুটিয়ে দেয়।

ওয়ানডের প্রস্তুতি। শত সমালোচনার পরও এখনো অধিনায়ক আছেন আজহার আলি। তিনি অবশ্য ব্যাট করেছেন শেষের দিকে। যাদের নিজেদের বেশি ঝালিয়ে নেওয়ার তারা আগে নেমেছেন। ওয়ানডেতে টানা ৩ সেঞ্চুরির ইতিহাস গড়া তরুণ বাবর আযম একটুর জন্য সেঞ্চুরি পাননি এই ম্যাচে। তিন নম্বরে ব্যাট করে ১১৩ বলে ১২ বাউন্ডারিতে ৯৮ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেছেন। আসাদ শফিক ওপেন করে দলের ১২ রানের সময় ফিরেছেন। তবে আরেক ওপেনার শারজিল খানের সাথে দ্বিতীয় উইকেটে ৮৩ রানের জুটি গড়েছেন বাবর। শারজিল ৩৯ বলে ১১ চার ও ১ ছক্কার তাণ্ডবে ৬২ রানের ইনিংস খেলে ফিরেছেন।

তৃতীয় উইকেটে বাবর ও অভিজ্ঞ শোয়েব মালিক ৭৮ রান জুড়লেন। ৪৯ রান শোয়েবের। পাকিস্তানের ইনিংসে ফিফটি আছে আরেকটি। উমর আকমল ৩৯ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় ৫৪ রান করেছেন।

এরপর জবাবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া একাদশ কোনো রান করার আগেই উইকেট হারায়। বাঁহাতি স্পিনার ইমাদ ওয়াসিম নতুন বলে ইনিংসের চতুর্থ বলেই উইকেট পেয়েছেন। ম্যাচে ২ উইকেট তার। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে স্বাগতিক দলটি। উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান জস ইংলিসই কেবল ৭০ রান করেছেন। আর দুই অংকের রান দুটি, ২০ ও ১০। বোঝা যাচ্ছে কেমন করেছেন পাকিস্তানের বোলাররা।

পেসার হাসান আলি ৬.২ ওভারে ১৮ রানে ৩ উইকেট নিয়ে বোলারদের মধ্যে সেরা। শোয়েব মালিকের ২ উইকেট। ১টি করে উইকেট রাহাত আলি, মোহাম্মদ নওয়াজ ও আজহারের। মোহাম্মদ আমির এই ম্যাচে খেলেননি। পাকিস্তান-অস্ট্রেলিয়া ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে লড়বে এরপর। ১৩ জানুয়ারি প্রথম ম্যাচ ব্রিসবেনেই।

Post A Comment: