মুশফিক-ইমরুলের দেশপ্রেমে আপ্লুত কোচ টিম সাউদির বাউন্সারের আঘাতে উইকেটের পাশে লুটিয়ে পড়ার পর মাঠ ছেড়েছিলেন অ্যাম্বুলেন্সে। সোজা হাসপাতালে। এক্স-রেতে গুরুতর কিছু ধরা না পড়ার পর আবার ফিরলেন সোজা মাঠে। নেমে পড়তে চেয়েছিলেন ব্যাটিংয়েও। কিন্তু ছাড়পত্র পাননি।
Imrul-coach-Rahim-inundated-with-patriotism
 
    
টিম সাউদির বাউন্সারের আঘাতে উইকেটের পাশে লুটিয়ে পড়ার পর মাঠ ছেড়েছিলেন অ্যাম্বুলেন্সে। সোজা হাসপাতালে। এক্স-রেতে গুরুতর কিছু ধরা না পড়ার পর আবার ফিরলেন সোজা মাঠে। নেমে পড়তে চেয়েছিলেন ব্যাটিংয়েও। কিন্তু ছাড়পত্র পাননি।


 ভয় জাগানো ঘটনাটির আগে আঙুলে চোট নিয়ে ব্যাট করছিলেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। ওপেনিং ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েসও আগের দিন চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন। পরেরদিন দলের দুঃসময়ে ব্যাট হাতে নেমে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন। দলের জন্য এমন নিবেদিত প্রাণ হওয়ায় কোচ চণ্ডিকা হাথুরুসিংহের প্রশংসাই পাচ্ছেন দুই টাইগার তারকা। দুই শিষ্যর এমন বীরত্বকে দলের জন্য উৎসাহ জাগানীয়া হিসেবে দেখছেন কোচ।

দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের জন্য বাংলাদেশ দল এখন ক্রাইস্টচার্চে। সিরিজ ড্র করার এবং ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচের আগে অনুশীলনে হানা দিয়েছিল বৃষ্টি। বুধবার তারই এক ফাঁকে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন হাথুরুসিংহে। তাতে মুশফিক-ইমরুলের জন্য বাহবার ঝাঁপি খুলে দিলেন কোচ। বললেন, ‘ওরা তো অনেক সাহসের পরিচয় দিয়েছে। ওরকম একটি দুর্ঘটনার পরও হাসপাতাল থেকে সোজা মাঠে চলে এসেছিল মুশফিক। তার আগে বুড়ো আঙুলের চোট নিয়ে ব্যাট করতে নেমেছে। স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়ার পর দলের প্রয়োজনে আবারো ব্যাট হাতে নেমেছিল ইমরুল। এসব খুবই উৎসাহব্যঞ্জক। তারা যে দেশের জন্য কতটা নিবেদিতপ্রাণ এগুলো সেটাই প্রমাণ করে।’

ওয়েলিংটনে অবিশ্বাস্যভাবে হেরে যাওয়া টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে আঙুলের চোট নিয়ে খেলতে নেমে মাথায় আঘাত নিয়ে হাসপাতালের পথ ধরেছিলেন মুশফিক। ফিজিও ডিন কনওয়ে তারপরই জানিয়েছেন দ্বিতীয় টেস্টে মুশফিকের খেলার সম্ভাবনা কম। বুধবার কোচের কথাতেও আশার কিছু মিলল না।

চোটগুলো দুর্ঘটনাবশত আর খেলার অংশ জানিয়ে হাথুরুসিংহে বললেন, ‘দলের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকজন খেলোয়াড়ের চোট আছে। মুশফিকের আরো একটা পরীক্ষা করা হবে। সেটার জন্য অপেক্ষা করছি। আর ইমরুলের সম্ভাবনা এখনো ফিফটি-ফিফটি।’

আবার একটি সুখবরও দিয়েছেন হাথুরু। পাঁজরে চোট পাওয়া মুমিনুল হককে নিয়ে বাংলাদেশ কোচ বলেছেন, ‘পাঁজরে চোট পেয়েছিল মুমিনুল। আপাতত ওর অবস্থা বেশ ভালো। আশা করছি টেস্টের আগেই খেলার মত পর্যায়ে চলে যাবে।’ এখন ইনজুরি জর্জর বাংলাদেশ দল। এই অবস্থায় টেস্টে দলের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মুমিনুলকে নিয়ে বলা কোচের কথাটা আসলো স্বস্তির সুবাতাস হয়ে।

Post A Comment: