আজ মুক্তি পাচ্ছে সরকারি অনুদানে নির্মিত ও শামীম আখতার পরিচালিত চলচ্চিত্র রিনা ব্রাউন। এই চলচ্চিত্রে নাম–ভূমিকায় অভিনয় করেছেন পরিচালকের মেয়ে প্রমা পাবণী। ছবি ও ব্যক্তিগত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হলো তাঁর সঙ্গে।

 China-does-not-like-it-when-everyone


আজ মুক্তি পাচ্ছে সরকারি অনুদানে নির্মিত ও শামীম আখতার পরিচালিত চলচ্চিত্র রিনা ব্রাউন। এই চলচ্চিত্রে নাম–ভূমিকায় অভিনয় করেছেন পরিচালকের মেয়ে প্রমা পাবণী। ছবি ও ব্যক্তিগত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হলো তাঁর সঙ্গে।


আপনাকে ‘বন্ধন’ ধারাবাহিকের ‘তিতির’ চরিত্রে দেখা গিয়েছিল। তারপর কি অভিনয়ে নিয়মিত ছিলেন?

হ্যাঁ, তারপর বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেছি। তবে নিয়মিত নয়, মাঝেমধ্যে। কিন্তু সেগুলো বন্ধন-এর মতো অত সাড়া ফেলেনি। আমারও পড়াশোনার ব্যস্ততা ছিল। তবে ছোটবেলায় আমার মা পরিচালিত ইতিহাস কন্যা ও শিলালিপি চলচ্চিত্রে খুব ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম।
‘রিনা ব্রাউন’-এ অভিনয়ের অভিজ্ঞতা কেমন?
এই চলচ্চিত্রের গল্প ষাটের দশকের শেষ দিক থেকে শুরু করে ১৯৭১ পর্যন্ত গেছে। ওই সময়ের ঢাকা শহর ও শহরের মানুষের গল্প বলা হয়েছে। সেই গল্পটাই শেষ করা হয়েছে এত দিনে এসে। তবে আমার যেটা মনে হয়, এই গল্পের সঙ্গে সব বয়সী মানুষ নিজেকে মেলাতে পারবেন। দেখতে বসলে খারাপ লাগবে না।
চরিত্রটা কেমন?
আমার চরিত্রের নাম রিনা ব্রাউন না। কিন্তু ছবিটির নায়ক আমাকে রিনা ব্রাউন বলে ডাকেন। তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের সপ্তপদী উপন্যাসের চরিত্র রিনা ব্রাউনের সঙ্গে আমার চরিত্রটার মিল খুঁজে পান বলেই তিনি এই নামে আমাকে ডাকেন।


ছবিতে নায়ক তো কলকাতার অভিনেতা বরুণ চন্দ...
হ্যাঁ, তবে ছবিতে বর্ষীয়ান চরিত্রে তিনি অভিনয় করেছেন। আর তরুণ বয়সে একই চরিত্রে অভিনয় করেছেন এ দেশের মাহফুজ রিজভী।

যত দূর জানি, বরুণ চন্দের সঙ্গে আপনিও তো বর্ষীয়ান বেশ ধারণ করেছেন। সমস্যা হয়নি?
না। আমি আমার মাকে খেয়াল করেছি বেশি। তিনি এই বয়সে কীভাবে চলেন, কথা বলেন, সেসব দেখে শিখেছি।

আপনি অভিনয়ে নিয়মিত নন। কারণ কী?
অভিনয় করতে ভালো লাগে। কিন্তু পরে যখন সবাই চিনে ফেলে তখন ভালো লাগে না। জনপ্রিয়তা বা সেলিব্রেটির ইমেজে আমি স্বাচ্ছন্দ্য নই। এ কারণেই অভিনয় কম করা হয়। আর এখন তো চাকরি করছি। সময়, সুযোগ ও ভালো গল্প না হলে করা হবে না হয়তো।

Post A Comment: