পেরুকে হারিয়ে বিশ্বকাপের লাতিন অঞ্চলের বাছাইপর্বে শীর্ষস্থানটা ধরে রেখেছে ব্রাজিল। লিমায় ব্রাজিলের জয়ের আনন্দটা অবশ্য বহুগুণে বেড়ে গেছে সান্তিয়াগো থেকে আসা এক খবরে। চিলির রাজধানীতে স্বাগতিকদের কাছে ৩-১ গোলে হেরে গেছে পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা উরুগুয়ে। ফলে পেরুর বিপক্ষে জয়ে উরুগুয়ের সঙ্গে ব্রাজিলের পয়েন্টের ব্যবধানটা বেড়ে দাঁড়াল ৪!



পেরুকে হারিয়ে বিশ্বকাপের লাতিন অঞ্চলের বাছাইপর্বে শীর্ষস্থানটা ধরে রেখেছে ব্রাজিল। লিমায় ব্রাজিলের জয়ের আনন্দটা অবশ্য বহুগুণে বেড়ে গেছে সান্তিয়াগো থেকে আসা এক খবরে। চিলির রাজধানীতে স্বাগতিকদের কাছে ৩-১ গোলে হেরে গেছে পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা উরুগুয়ে। ফলে পেরুর বিপক্ষে জয়ে উরুগুয়ের সঙ্গে ব্রাজিলের পয়েন্টের ব্যবধানটা বেড়ে দাঁড়াল ৪!


আর্জেন্টিনার সামনে বেশ ভালো সুযোগ ছিল ৪ নম্বরে উঠে আসার। কিন্তু অ্যালেক্সিস সানচেজের জোড়া গোল আবারও হিসাব পাল্টে দিল। এই জোড়া গোলেই পিছিয়ে পড়েও ৩-১-এ উরুগুয়েকে হারিয়ে দিল চিলি। অন্য ম্যাচে ইকুয়েডর ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিল ভেনেজুয়েলাকে।


চিলি আর ইকুয়েডর নিজ নিজ ম্যাচ জেতায় আর্জেন্টিনার ৪ নম্বরে ওঠা হলো না। ৫ নম্বর নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে আপাতত। আজ কলম্বিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে স্বস্তির এক জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। মেসি, প্রাতো ও ডি মারিয়ার তিন গোলে আসা এই জয়ে ৬ থেকে আর্জেন্টিনা উঠে এসেছে ৫ নম্বরে।


বিশ্বকাপে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে সরাসরি চারটি দল বিশ্বকাপে খেলবে। ফলে আর্জেন্টিনারও মূল লক্ষ্য সেরা চারে থাকা। সেই সম্ভাবনা এখনো জিইয়ে রেখেছে আর্জেন্টিনা। পেরুর বিপক্ষে জয়ের পর ১২ ম্যাচে ব্রাজিলের পয়েন্ট এখন ২৭। পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপ প্রায় নিশ্চিতই হয়ে গেছে। ১২ ম্যাচে উরুগুয়ের পয়েন্ট ২৩। সমান ম্যাচে ইকুয়েডর-চিলির পয়েন্ট ২০। আর্জেন্টিনার ১৯। ৬ নম্বরে থাকা কলম্বিয়ার পয়েন্ট ১৮।


চার মাস বিরতির পর আগামী মার্চে আবারও শুরু হবে এই অঞ্চলের বাছাইপর্বের খেলা। প্রথম ম্যাচেই আর্জেন্টিনা মুখোমুখি হবে চিলির। এই চিলি টানা দুই বছর তাদের কোপা আমেরিকা জিততে দেয়নি। আজও সেরা চারে উঠতে বাদ সেধেছে। তবে চিলিকে আর্জেন্টিনা যদি হারাতে পারে ২৩ মার্চের ম্যাচটিতে, আর্জেন্টিনার সুযোগ থাকছে সেরা দুই-তিনের মধ্যে উঠে যাওয়ার।


একেকটি জয় এভাবেই এই অঞ্চলের পয়েন্ট টেবিলের চেহারা প্রায় ওলট-পালট করে দিচ্ছে। এটা আর্জেন্টিনার জন্য যেমন সুখবর, তেমনি সতর্কবার্তাও। এক জয় তাদের নিরাপদ জায়গায় যেমন এনে দেবে, আবার এক অপ্রত্যাশিত পরাজয়ও ছিটকে দেবে নিরাপদ বৃত্তের বাইরে।

শেষ ৬ ম্যাচের কোনোটাই তাই হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই মেসিদের।

Post A Comment: