সিলেট: সিলেট এমসি কলেজ ক্যাম্পাসের ভেতরে খাদিজা আক্তার নার্গিস (২৩) নামের এক শিক্ষার্থীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) এক শিক্ষার্থী। পরে অন্য শিক্ষার্থীরা তাকে পিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। সোমবার বিকেল সোয়া ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত খাদিজা আক্তার নার্গিস সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ইসলামিক ইতিহাস বিভাগের ডিগ্রির শিক্ষার্থী ও নগরীর আখালিয়া এলাকার মাশুক মিয়ার মেয়ে। তার ওপর হামলাকারী বদরুল ইসলাম শাবিপ্রবির অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার জোছনাবাজারের বাসিন্দা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সরকারি এমসি কলেজে ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষা দিয়ে বের হওয়ার সময় ওই ছাত্রীকে কুপিয়ে জখম করেন বদরুল। পরে শিক্ষার্থীরা তাকে ধরে পিটুনি দেয়। এদিকে, ছাত্রীকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান তার সহপাঠীরা। হাসপাতালে জরুরি ভিত্তিতে তার শরীরে অস্ত্রোপচার চলছে। এ ঘটনার পর খাদিজার সহপাঠীরা এমসি কলেজ সংলগ্ন টিলাগড় পয়েন্টে বিক্ষোভ ও অবরোধ করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। সিলেট মহানগর পুলিশ দক্ষিণের উপকমিশনার (ডিসি) বাসুদেব বণিক জানান, হামলাকারী যুবককে আটক করা হয়েছে। তিনি শাবিপ্রবির শিক্ষার্থী। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ঘটনাটি প্রেম সম্পর্কিত কারণে ঘটেছে বলেই ধারণা করা হচ্ছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পরে জানানো হবে। এ ছাড়া এ ঘটনায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। সিলেট মহানগরীর শাহ পরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল মুন্সী জানান, ঘটনার পর পুলিশ হামলাকারী ছেলেটিকে শিক্ষার্থীদের রোষানল থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এর আগে মেয়েটিকে সহপাঠীরা হাসপাতালে নিয়ে যান।
সিলেট: সিলেট এমসি কলেজ ক্যাম্পাসের ভেতরে খাদিজা আক্তার নার্গিস (২৩) নামের এক শিক্ষার্থীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) এক শিক্ষার্থী। পরে অন্য শিক্ষার্থীরা তাকে পিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।







সোমবার বিকেল সোয়া ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহত খাদিজা আক্তার নার্গিস সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ইসলামিক ইতিহাস বিভাগের ডিগ্রির শিক্ষার্থী ও নগরীর আখালিয়া এলাকার মাশুক মিয়ার মেয়ে। তার ওপর হামলাকারী বদরুল ইসলাম শাবিপ্রবির অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার জোছনাবাজারের বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সরকারি এমসি কলেজে ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষা দিয়ে বের হওয়ার সময় ওই ছাত্রীকে কুপিয়ে জখম করেন বদরুল। পরে শিক্ষার্থীরা তাকে ধরে পিটুনি দেয়।

এদিকে, ছাত্রীকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান তার সহপাঠীরা। হাসপাতালে জরুরি ভিত্তিতে তার শরীরে অস্ত্রোপচার চলছে।

এ ঘটনার পর খাদিজার সহপাঠীরা এমসি কলেজ সংলগ্ন টিলাগড় পয়েন্টে বিক্ষোভ ও অবরোধ করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।

সিলেট মহানগর পুলিশ দক্ষিণের উপকমিশনার (ডিসি) বাসুদেব বণিক জানান, হামলাকারী যুবককে আটক করা হয়েছে। তিনি শাবিপ্রবির শিক্ষার্থী। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ঘটনাটি প্রেম সম্পর্কিত কারণে ঘটেছে বলেই ধারণা করা হচ্ছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পরে জানানো হবে। এ ছাড়া এ ঘটনায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

সিলেট মহানগরীর শাহ পরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল মুন্সী জানান, ঘটনার পর পুলিশ হামলাকারী ছেলেটিকে শিক্ষার্থীদের রোষানল থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এর আগে মেয়েটিকে সহপাঠীরা হাসপাতালে নিয়ে যান।

Post A Comment: