ছবিকে শিল্পরূপ দেওয়ার অ্যাপ্লিকেশন হিসেবে প্রিজমা বেশ জনপ্রিয় অ্যাপ। এ বছরের জুলাই মাসে প্রিজমা অ্যাপ্লিকেশনটি চালু হওয়ার পর বেশ সাড়া ফেলে। প্রিজমার দেখাদেখি বেশ কয়েকটি বড় প্রতিষ্ঠান ‘স্টাইল বদলের’ এই প্রযুক্তি নিয়ে অ্যাপ তৈরি করে। এ তালিকায় ফেসবুকের মতো প্রতিষ্ঠানের নামও রয়েছে। এবারে এ তালিকায় যুক্ত হচ্ছে গুগলের নাম।



ছবিকে শিল্পরূপ দেওয়ার অ্যাপ্লিকেশন হিসেবে প্রিজমা বেশ জনপ্রিয় অ্যাপ। এ বছরের জুলাই মাসে প্রিজমা অ্যাপ্লিকেশনটি চালু হওয়ার পর বেশ সাড়া ফেলে। প্রিজমার দেখাদেখি বেশ কয়েকটি বড় প্রতিষ্ঠান ‘স্টাইল বদলের’ এই প্রযুক্তি নিয়ে অ্যাপ তৈরি করে। এ তালিকায় ফেসবুকের মতো প্রতিষ্ঠানের নামও রয়েছে। এবারে এ তালিকায় যুক্ত হচ্ছে গুগলের নাম।


গুগলের স্টাইল বদলের এই প্রযুক্তি ভিডিওতে নানা ফিল্টার যুক্ত করার পাশাপাশি বিভিন্ন ফিল্টার যুক্ত করে রিয়েল টাইমে ভিডিও তৈরির সুযোগ দেবে। এই পরিবর্তনের জন্য কোনো সময়ক্ষেপণ হবে না।


গুগল কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, ব্যবহারকারীদের ১৩টি ভিন্ন পেইন্টিং স্টাইল যুক্ত করার এবং বিভিন্ন স্টাইল নিয়ন্ত্রণ করার সুবিধা দেওয়া হবে। একাধিক স্টাইল একসঙ্গে ব্যবহারের এই সুবিধা খুব সহজভাবে করা যাবে। স্টাইল বদলের এই নেটওয়ার্ক কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে নিয়ন্ত্রিত হবে।


গুগলের এক ব্লগ পোস্টে জানানো হয়েছে, সৃজনশীলতার নানা অপশন পাবেন ব্যবহারকারীরা এবং নানা পেইন্টিং স্টাইল কাজে লাগিয়ে নিজস্ব স্টাইল তৈরি করতে পারবেন। অবশ্য কবে নাগাদ এই প্রযুক্তি উন্মুক্ত করা হবে সে তথ্য গুগল জানায়নি।

Post A Comment: