ট্রেনের কামরা থেকে উদ্ধার হলো জ্যান্ত একটি অজগর। আজ বুধবার সকালে কলকাতার জনবহুল শিয়ালদহ স্টেশন থেকে উদ্ধার করা হয় অজগরটিকে। পরে অজগরটিকে বন দপ্তরের হাতে তুলে দেওয়া হয়।



ট্রেনের কামরা থেকে উদ্ধার হলো জ্যান্ত একটি অজগর। আজ বুধবার সকালে কলকাতার জনবহুল শিয়ালদহ স্টেশন থেকে উদ্ধার করা হয় অজগরটিকে। পরে অজগরটিকে বন দপ্তরের হাতে তুলে দেওয়া হয়।


এদিকে খোদ শিয়ালদহ স্টেশনে ট্রেনের জনবহুল কামরা থেকে অজগর উদ্ধার হওয়ায় এদিন সকালেই রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে শিয়ালদহ স্টেশনজুড়ে। 


উদ্ধার হওয়া অজগরটি বিরল প্রজাতির বলে জানা গেছে। রেলের জিআরপি সূত্রে জানা যায়, এ দিন সকালে শিয়ালদহ স্টেশনের হাটেবাজারে এক্সপ্রেস থেকে উদ্ধার হয় অজগরটি।


হাটেবাজারে ট্রেনটি শিয়ালদহ স্টেশনে এসে দাঁড়াতেই এই ঘটনা চোখে পড়ে যাত্রীদের। যাত্রীরা জানান, অনেকক্ষণ ধরেই ট্রেনের কামরার মধ্যে ফোঁস ফোঁস শব্দ শুনতে পাচ্ছিলেন তাঁরা। কিন্ত আওয়াজটা কোথা থেকে আসছিল তা বুঝে উঠতে পারছিলেন না। কিন্ত বারবার ফোঁস ফোঁস আওয়াজ শোনা যাচ্ছিল বলে যাত্রীরা জানান।


এর পরই আচমকা এক যাত্রী চিৎকার করে লাফিয়ে ওঠেন। পরে যাত্রীরা দেখতে পান, ওই যাত্রীর সিটের নিচে গুটিসুটি মেরে শুয়ে রয়েছে অজগরটি। সঙ্গে যে যেদিকে পারে পড়িমরি করে ছুট। রীতিমতো হুটোপুটি পড়ে যায় স্টেশন চত্বরজুড়ে।


খবর দেওয়া হয় শিয়ালদহ জিআরপিতে। পরে জিআরপি এসে উদ্ধার করে অজগরটিকে। পরে সেটিকে বন দপ্তরের হাতে তুলে দেওয়া হয়।


তবে অজগরটি কীভাবে জনবহুল ট্রেনের কামরায় এলো তা নিয়ে ধন্দে পড়েছেন জিআরপিকর্মীরা। তবে জিআরপি সূত্রে প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হচ্ছে, পাচারের উদ্দেশ্যেই সম্ভবত কেউ হাটেবাজারে ট্রেনে তুলেছিল অজগরটিকে।


Post A Comment: