চিকিৎসকদের মতে মুস্তাফিজুর রহমানের চোট খুব গুরুতর কিছু নয়, খুবই সামান্য। অথচ সেই ‘সামান্য’ এক চোটের চিকিৎসার জন্যই খরচ করতে হচ্ছে পর্বত সমান অর্থ। অস্ত্রোপচার ও আনুষঙ্গিক বিভিন্ন ফির জন্য চিকিৎসাতেই খরচ পড়ছে প্রায় ১৪ লাখ ৭০ হাজার টাকা!


চিকিৎসকদের মতে মুস্তাফিজুর রহমানের চোট খুব গুরুতর কিছু নয়, খুবই সামান্য। অথচ সেই ‘সামান্য’ এক চোটের চিকিৎসার জন্যই খরচ করতে হচ্ছে পর্বত সমান অর্থ। অস্ত্রোপচার ও আনুষঙ্গিক বিভিন্ন ফির জন্য চিকিৎসাতেই খরচ পড়ছে প্রায় ১৪ লাখ ৭০ হাজার টাকা!


সাসেক্সের হয়ে খেলতে গিয়ে মাত্র দুই ম্যাচ পরই কাঁধে চোট পান কাটার মাস্টার মুস্তাফিজ। বৃহস্পতিবার লন্ডনের স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা থেকে সাড়ে ১২টার মধ্যে সেই চোটেরই অস্ত্রোপচার হবে কেনসিংটনের বুপা ক্রমওয়েল হাসপাতালে। শুরু থেকে আজকের অস্ত্রোপচার পর্যন্ত মুস্তাফিজের পেছনে মোট খরচ হচ্ছে প্রায় সাড়ে ১৪ হাজার পাউন্ড, বাংলাদেশী মুদ্রায় রূপান্তর করলে যার পরিমাণ দাঁড়ায় ১৪ লাখ ৭০ হাজার টাকা!


অবশ্য মুস্তাফিজের চিকিৎসার জন্য এই পুরো অর্থই যে বিসিবি একা ব্যয় করছে তা নয়। মুস্তাফিজের কাউন্টি ক্লাব সাসেক্সও কিছু ব্যয় করেছে বটে, কিন্তু সিংহভাগ অর্থই আসছে বিসিবির নিজস্ব কোষাগার থেকে। সাসেক্সের ২৮৫০ পাউন্ডের বিপরীতে বিসিবির ব্যয় প্রায় সাড়ে ১১ হাজার পাউন্ড।

একটি সূত্রে জানা গেছে, চোট পাওয়ার পর মুস্তাফিজের প্রথম এমআরআই বাবদ ৮৫০ পাউন্ড, দ্বিতীয় এমআরআইয়ের ১ হাজার পাউন্ড এবং বিশেষজ্ঞ শল্যবিদ টনি কোচারের ভিজিট হিসেবে আরও ১ হাজার পাউন্ড দিয়েছে সাসেক্স। এরপর থেকেই বাঁ হাতি এই পেসারের চিকিৎসার সব খরচ বহন করছে বিসিবি।


কোচার অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেওয়ার পর বিসিবি মুস্তাফিজকে ম্যানচেস্টারে পাঠায় ডা. ক্রেইগ ফাঙ্কের পরামর্শ নিতে। তাঁর ভিজিট ছিল ১ হাজার ৫০ পাউন্ড। অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন তিনিও। কিন্তু ছুটিতে চলে যাবেন বলে ফাঙ্কের কাছে অস্ত্রোপচার করতে সময় লাগতো আরও।


ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) পরামর্শে তাই বিসিবি যোগাযোগ করে বুপা ক্রমওয়েল হাসাপাতালের শল্যবিদ অ্যান্ড্রু ওয়ালেসের সঙ্গে। হাসপাতালে ২৫০ পাউন্ড এন্ট্রি ফি দিয়ে তাঁকে প্রথমবার দেখান মুস্তাফিজ। ওই সাক্ষাতের ভিজিটের টাকাটা তখনই না নিলেও সেটি যোগ হওয়ার কথা অস্ত্রোপচারের বিলের সঙ্গে। ভিজিটের অঙ্কটা হতে পারে হাজার খানেক পাউন্ডের মতো।


মুস্তাফিজের কাঁধে গতকাল ‘টেলিস্কোপ সার্জারি’ নামে যে অস্ত্রোপচারটি হয়েছে , শুধু সেটিতেই বিসিবির খরচ হচ্ছে ৯২৪০ পাউন্ড। এর মধ্যে ওয়ালেসের ফি ৪৫০০ পাউন্ড, হাসপাতাল ফি ৩৩৯০ পাউন্ড ও অ্যানেসথেসিয়া ফি ১৩৫০ পাউন্ড। সব মিলিয়ে মুস্তাফিজের চিকিৎসা বাবদ বিসিবির খরচ পড়ছে প্রায় সাড়ে ১১ হাজার পাউন্ড, বাংলাদেশী মুদ্রায় যা ১৪ লাখ ৭০  হাজার টাকার মতো।

Post A Comment: