চীনের এক ট্রাভেল কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি পোস্টে কোম্পানির অনেক কর্মকর্তা 'লাইক' দেননি বা কোন ধরনের মন্তব্য করেননি। আর তাতেই ঘটেছে বিপত্তি। এমন অপরাধের কারণে অনেক কর্মকর্তাকে গুনতে হয়েছে জরিমানার টাকা। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে চীনের পূর্বাঞ্চলীয় একটি শহরে। বেইজিং ইয়োথ ডেইলির বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, একটি ট্রাভেল কোম্পানির প্রায় ২০০ কর্মকর্তার প্রত্যেককে ৫০ ইউয়ান, অর্থাৎ বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫০০ টাকা করে জরিমানা দিতে হয়েছে। কোম্পানিটির প্রধান নির্বাহীর একটি মাইক্রোব্লগিং অ্যাকাউন্টে লাইক বা কমেন্ট করার কথা বলা হয়েছিল কর্মকর্তাদের। ওই ব্লগে তিনি বিভিন্ন কোম্পানির খবরাখবর এবং বিভিন্ন ধরনে অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য শেয়ার করেন। কিন্তু মন্তব্য করতে বলার পরও যারা সেখানে কোন ধরনের অংশগ্রহণ করেননি তাদের দেয়া হয়েছে এই জরিমানার শাস্তি।



চীনের এক ট্রাভেল কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি পোস্টে কোম্পানির অনেক কর্মকর্তা 'লাইক' দেননি বা কোন ধরনের মন্তব্য করেননি। আর তাতেই ঘটেছে বিপত্তি। এমন অপরাধের কারণে অনেক কর্মকর্তাকে গুনতে হয়েছে জরিমানার টাকা। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে চীনের পূর্বাঞ্চলীয় একটি শহরে। বেইজিং ইয়োথ ডেইলির বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, একটি ট্রাভেল কোম্পানির প্রায় ২০০ কর্মকর্তার প্রত্যেককে ৫০ ইউয়ান, অর্থাৎ বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫০০ টাকা করে জরিমানা দিতে হয়েছে। কোম্পানিটির প্রধান নির্বাহীর একটি মাইক্রোব্লগিং অ্যাকাউন্টে লাইক বা কমেন্ট করার কথা বলা হয়েছিল কর্মকর্তাদের। ওই ব্লগে তিনি বিভিন্ন কোম্পানির খবরাখবর এবং বিভিন্ন ধরনে অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য শেয়ার করেন। কিন্তু মন্তব্য করতে বলার পরও যারা সেখানে কোন ধরনের অংশগ্রহণ করেননি তাদের দেয়া হয়েছে এই জরিমানার শাস্তি। 

Post A Comment: