ঠাকুরগাঁওয়ে ‘বৃক্ষ মানব’ রোগে ভুগছেন ৭ বছরের শিশু রিপন। তার বাড়ি জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার কেটগাঁও গ্রামে। পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, জন্মের তিন মাস পর থেকেই শিশু রিপন রায়ের হাত-পায়ে গুটির মতো এই রোগ দেখা দেয়। তার বয়স যখন সাত বছর তখনো অবস্থার কোন পরিবর্তন করতে পারেননি স্থানীয় চিকিৎসকরা।



ঠাকুরগাঁওয়ে ‘বৃক্ষ মানব’ রোগে ভুগছেন ৭ বছরের শিশু রিপন। তার বাড়ি জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার কেটগাঁও গ্রামে।


পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, জন্মের তিন মাস পর থেকেই শিশু রিপন রায়ের হাত-পায়ে গুটির মতো এই রোগ দেখা দেয়। তার বয়স যখন সাত বছর তখনো অবস্থার কোন পরিবর্তন করতে পারেননি স্থানীয় চিকিৎসকরা।


রিপনের বাবা জুতা সেলাইয়ের কাজ করেন। আর্থিক অভাবের কারণে সন্তানের উন্নত চিকিৎসাও করাতে পারছেন না তিনি। তার তিন সন্তানের মধ্যে রিপন সবার ছোট। সে কেটগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র। রিপন রায় আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, আমি একা একা স্নান করতে পারি না। নিজ হাতে ভাতও খেতে পারি না, আমার চলাফেরা করতে অনেক সমস্যা হয়। স্কুলেও যেতে পারিনা ঠিকমত। অনেকেই আমার সাথে মিশতে চায় না।


রিপনের মা গোলাপি রানী বলেন, এখানকার ডাক্তার দেখিয়েছি, কিন্তু কোন লাভ হচ্ছেনা। ডাক্তাররা ঢাকা কিংবা দেশের বাইরে নিয়ে যেতে বলছে। যেখানে নিজেই চলতে পারিনা সেখানে ঢাকা নিয়ে যাব কিভাবে ?


এই বিষয়ে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার হুমায়ুন কবির বলেন, এটা নিউরন সংক্রান্ত রোগ বলে ধারণা করা হয়। এই রোগ আগে ছিল না, এই জাতীয় রোগীদের হাত-পা গাছের শেকড়ের মতো হয়।


Post A Comment: