চার বছর বয়সের শিশুরা সাধারণত প্লে’তে পড়বে এটাই স্বাভাবিক। তবে অস্বাভাবিক হলেও ঘটনাটি সত্যি ভারতের মেয়ে অনন্যা মাত্র চার বছরে নবম শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেয়েছে।



চার বছর বয়সের শিশুরা সাধারণত প্লে’তে পড়বে এটাই স্বাভাবিক। তবে অস্বাভাবিক হলেও ঘটনাটি সত্যি ভারতের মেয়ে অনন্যা মাত্র চার বছরে নবম শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেয়েছে।


ভারতের উত্তর প্রদেশ লক্ষ্যয়ের বাসিন্দা অনন্যা বর্মাকে সরাসরি নবম শ্রেণিতে ভর্তি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, চার বছরের অনন্যা কোনো প্রথাগত শিক্ষা ছাড়াই গড়গড় করে রামায়ণ, মহাভারত পড়তে পারে। হনুমান চালিসা পাঠ করা তার কাছে পানি ভাতের মত। যে স্কুলে অনন্যা ভর্তি হয়েছে সেই স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি, ব্যতিক্রমী প্রতিভার অধিকারী এই শিশুটির বিশেষ নজর প্রয়োজন। বিশেষত গণিতের উপর জোর দিতে চান স্কুলের শিক্ষকরা।


চার বছরের শিশুকে সরাসরি নবম শ্রেণিতে ভর্তি করার জন্য রাজ্যের স্কুল শিক্ষা দফতরের কাছে আবেদনও করা হয়েছে স্কুলের পক্ষ থেকে। যদিও অনন্যার পরিবারে এমন বিস্ময় নতুন কিছু নয়। কারণ, অনন্যার দিদি সুষমা মাত্র সাত বছর বয়সে দশম শ্রেণির পরীক্ষায় পাশ করে লিমকা বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম তুলেছিল। অনন্যার দাদা দেশের কনিষ্ঠতম কম্পিউটার গ্র্যাজুয়েট হয়ে ২০০৭ সালে সাড়া ফেলে দিয়েছিল। মেয়ের এমন অবিশ্বাস্য প্রতিভার জন্য বাবা তেজ বাহাদুর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে সুপারভাইজারের চাকুরি পেয়েছেন।!

Post A Comment: