পরিচালক নিয়ে ‘শিকারি’র বিভ্রান্তি কাটছেই না। ঈদুল ফিতরের আগে সিনেমাটির বাংলাদেশি পরিচালকের নাম বদলের অভিযোগ ওঠে। এবার একই কাণ্ড ঘটল ভারতীয় পরিচালকের ক্ষেত্রে।

পরিচালক নিয়ে ‘শিকারি’র বিভ্রান্তি কাটছেই না। ঈদুল ফিতরের আগে সিনেমাটির বাংলাদেশি পরিচালকের নাম বদলের অভিযোগ ওঠে। এবার একই কাণ্ড ঘটল ভারতীয় পরিচালকের ক্ষেত্রে।


মহরতে জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজ ‘শিকারি’র বাংলাদেশি পরিচালক হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেন জাকির হোসেন সীমান্তকে। ভারতীয় অংশের পরিচালক হিসেবে ছিলেন জয়দেব মুখার্জী। অথচ সিনেমাটির হল প্রিন্টে দুই পরিচালকের কারো নাম নেই।

জুনের শেষদিকে ‘শিকারি’র সেন্সর সনদে আজিজের নাম না থাকায় বিতর্ক ‍ওঠে এক দফা। সে সময় সেন্সর বোর্ড প্রতিষ্ঠানটিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়। মুক্তির পর দেখা গেল পরিচালক হিসেবে সীমান্তের বদলে আজিজ, আর জয়দেবের বদলে রাজেশ কুমার যাদবের (বাবা যাদব) নাম।

নিজের নাম না থাকা প্রসঙ্গে ঈদের আগে সীমান্ত পরিবর্তন ‍ডটকমকে বলেছিলেন, ‘এটা কোনো ব্যাপার না। সাময়িক সমস্যা হয়েছে। হলে আপনারা আমার নামই পাবেন।’ কিন্তু বাস্তবে তেমনটি হয়নি। উল্টো কলকাতার অংশের পরিচালক জয়দেবের নামই পাওয়া যাচ্ছে না।

রাজধানীর মধুমিতা হলে গিয়ে ‘শিকারি’র শুরুর টাইটেলে আবদুল আজিজ ও রাজেশ কুমার যাদবের নাম দেখা যায়। আর শেষ টাইটেলে পরিচালক হিসেবে শুধুমাত্র আবদুল আজিজের উল্লেখ আছে। উপস্থিত দর্শকদের অনেকেই ব্যাপারটিতে বিস্ময় প্রকাশ করেন। কেউ কেউ ছবি তুলে দৃশ্যটি ফেসবুকে শেয়ার করেন।

এ ব্যাপারে আবদুল আজিজের বক্তব্যের জন্য ফোন করে তার নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। ফেসবুকে নক করেও তাকে পাওয়া যায়নি। এছাড়া জাকির হোসেন সীমান্ত ফোন রিসিভ করেননি।

যৌথ প্রযোজনার ‘শিকারি’তে অভিনয় করেছেন শাকিব খান ও শ্রাবন্তী। এছাড়া জাজের ব্যানারে  মুক্তি পাওয়া ঈদের অন্য সিনেমা ‘বাদশা দ্য ডন’ পরিচালনা করেছেন বাবা যাদব, অভিনয় করেছেন জিৎ ও নুসরাত ফারিয়া

Post A Comment: