মুম্বাই: সানি লিওনের স্বপ্নের কাজে একেবারে চোনা ফেলে দিতে চলেছে পাকিস্তান। বলিউডে আসার পর থেকে সানির বড় স্বপ্ন ছিল খানেদের সঙ্গে কাজ করার। অনেক সিনেমায় কাজ করলেও সানির কাছে কিছুতেই খান সাহেব (শাহরুখ, সালমান, আমির) দের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করার সুযোগ আসছিল না। কিন্তু হঠাৎ করেই তাঁকে নিয়ে চলা বিতর্কের মধ্যেই সুযোগ এসে পড়ে।

মুম্বাই:  সানি লিওনের স্বপ্নের কাজে একেবারে চোনা ফেলে দিতে চলেছে পাকিস্তান। বলিউডে আসার পর থেকে সানির বড় স্বপ্ন ছিল খানেদের সঙ্গে কাজ করার। অনেক সিনেমায় কাজ করলেও সানির কাছে কিছুতেই খান সাহেব (শাহরুখ, সালমান, আমির) দের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করার সুযোগ আসছিল না। কিন্তু হঠাৎ করেই তাঁকে নিয়ে চলা বিতর্কের মধ্যেই সুযোগ এসে পড়ে।


শাহরুখের সিনেমা 'রইস'-এর এক আইটেম গানে কোমর দোলানোর সুযোগ এসে পড়ে সানির। সুযোগ পেয়ে আপ্লুত হয়ে যান ইন্দো-কানাডিয়ান এই প্রাক্তন পর্নস্টার। শাহরুখের সঙ্গে গানের দৃশ্যে শুটও সেরে ফেলেন সানি। গানের নাম 'লায়লা ও লায়লা'।                                    
                                                                                         কিন্তু রইস-এর সেই আইটেম গান সম্ভবত দেখানো হবে না পাকিস্তানে। কারণ ছবির প্রযোজকরা পাক কর্তৃপক্ষের কাছে এমনই বার্তা পেয়েছেন। 'লায়লা ও লায়লা'-এর কোনও দৃশ্য না দেখেই পাক কর্তৃপক্ষ জানায় সানি লিওনের আইটেম গান পাকিস্তান সংস্কৃতির সঙ্গে বেমানান ও দেশের শালীনতা বিরোধী। ছবি রিলিজ আটকে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করে পাকিস্তানে সানির আইটেম গান ছাড়াই রিলিজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেড চিলিজ এন্টারটেনমেন্ট।

রইস-এ দেখা শাহরুখের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যাবে পাক অভিনেত্রী মাহিরা খানকে। সেই সঙ্গে সিনেমার প্রধান চরিত্রও পাকিস্তানের এক ব্যবসায়ী।  তাই পাকিস্তানে এই সিনেমা ব্যাপক ব্যবসা করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।  তাই আর কোনও ঝুঁকি না নিয়ে সানির কোমর দোলানোর দৃশ্যগুলি বাদ রেখেই পাকিস্তানে পাঠানো হচ্ছে। গল্পের পটভূমি আটের দশকের কল্যাণ (গুজরাত)৷ এখানেই বেআইনি ব্যবসা চালায় রইস৷ কীভাবে রইস-এর জীবনে আসা টালমাটাল, তা নিয়েই সিনেমা।

আগে ঠিক ছিল এ বছর ঈদে রিলিজ করবে এই সিনেমা।  কিন্তু পরে সিনেমার রিলিজ ডেট পিছিয়ে আগামী বছর ২৬ জানুয়ারি ঠিক হয়।

Post A Comment: