বোর্দোর স্তাদ দো বোর্দোয় পরশু ইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালে বুফন-কিয়েলিনিরা স্মরণ করেছেন ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় পৈশাচিক ও নৃশংস সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ব্যক্তিদের। সন্ত্রাসী এই হামলায় নিহত ব্যক্তিদের জন্য শোকার্ত মাশরাফি বিন মুর্তজা-তামিম ইকবালরাও।




বোর্দোর স্তাদ দো বোর্দোয় পরশু ইউরোর কোয়ার্টার ফাইনালে বুফন-কিয়েলিনিরা স্মরণ করেছেন ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় পৈশাচিক ও নৃশংস সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ব্যক্তিদের। সন্ত্রাসী এই হামলায় নিহত ব্যক্তিদের জন্য শোকার্ত মাশরাফি বিন মুর্তজা-তামিম ইকবালরাও।


গত শুক্রবার রাতে গুলশানের ওই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ভীষণ মর্মাহত তামিম ইকবাল। ঘটনার নিন্দা জানিয়ে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একের পর এক টুইট করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এই বাঁহাতি ওপেনার। অসাম্প্রদায়িক দেশের অনন্য এক উদাহরণ বাংলাদেশ। যুগ যুগ ধরে ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সহাবস্থান করে আসছে এ দেশের মানুষ। এখানকার মানুষ ভীষণ অতিথিপরায়ণ; বিদেশিরা তাদের কাছে দেবতুল্য। 


শান্তিপ্রিয় দেশটিতেই কিনা এমন নৃশংসা হত্যাকাণ্ডের শিকার হলেন তিন বাংলাদেশিসহ কয়েকজন বিদেশি নাগরিকও? তামিম যেন বিশ্বাসই করতে পারছেন না। পরপর কয়েকটি টুইট বার্তায় এ কথাগুলোই তুলে ধরেছেন তামিম। একটি টুইট বার্তায় বাংলাদেশ দলের ওপেনার লিখেছেন, ‘এটা আমাদের দেশের আসল ছবি না। আমাদের যেন আর কখনো এভাবে পরিচিত হতে না হয়। হে আল্লাহ, আমার দেশ-ঘরকে শান্তিতে রাখুন!’ আরও একটি টুইট বার্তায় দেশের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যান লিখেছেন, ‘গত রাতে (শুক্রবার) হলি আর্টিজানে যা হলো এটা বাংলাদেশের চেহারা নয়।’ এ ছাড়া হ্যাশ ট্যাগে লিখেছেন, ‘প্রে ফর ঢাকা’ বা ‘ঢাকার জন্য প্রার্থনা’।


তামিমের মতো তাঁর সতীর্থরাও নিহত ব্যক্তিদের প্রতি শোক জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ফেসবুকে নিজের অফিশিয়াল পেজের প্রোফাইল ছবিটি কালো করে দিয়েছেন। সেখানে হ্যাশ ট্যাগে লেখা ‘প্রে ফর ঢাকা’। তাঁর কভার ছবিতে রয়েছে মুক্তিযুদ্ধ চলার সময়ে ব্যবহৃত বাংলাদেশের পতাকার ছবি।


ফেসবুকে প্রোফাইল ছবি পরিবর্তন করে একে একে শোক জানিয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা, নাসির হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ,  মুমিনুল হক, সাব্বির রহমানের মতো তারকারা। ছবির নিচের অংশে পতাকায় লেখা ‘উই আর বাংলাদেশ’।

Post A Comment: