ফোনে নতুনত্ব আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে স্যামসাং। আগামী বছরের শুরুর দিকে মোবাইল ফোনের বাজারে আরও চমক নিয়ে হাজির হবে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠানটি। ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, নমনীয় বা ভাঁজ করা যায়—এমন ডিসপ্লেযুক্ত দুটি মডেলের স্মার্টফোন উন্মুক্ত করতে পারে স্যামসাং। একটি মডেলের ডিসপ্লে অর্ধেক ভাঁজ করা যাবে, আরেকটি মডেল দুমড়িয়ে রাখা যাবে। এই দুটি ডিসপ্লে তৈরি করা হবে অর্গানিক লাইট-এমিটিং ডায়োড (ওএলইডি) দিয়ে।
 







ফোনে নতুনত্ব আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে স্যামসাং। আগামী বছরের শুরুর দিকে মোবাইল ফোনের বাজারে আরও চমক নিয়ে হাজির হবে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠানটি। ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, নমনীয় বা ভাঁজ করা যায়—এমন ডিসপ্লেযুক্ত দুটি মডেলের স্মার্টফোন উন্মুক্ত করতে পারে স্যামসাং।  একটি মডেলের ডিসপ্লে অর্ধেক ভাঁজ করা যাবে, আরেকটি মডেল দুমড়িয়ে রাখা যাবে। এই দুটি ডিসপ্লে তৈরি করা হবে অর্গানিক লাইট-এমিটিং ডায়োড (ওএলইডি) দিয়ে।



বাজারে এ ধরনের ফোনের গুঞ্জন সম্পর্কে স্যামসাং কর্তৃপক্ষ অবশ্য মুখ খুলতে নারাজ। স্যামসাংয়ের এক মুখপাত্র বলেন, ‘বাজারের অনুমান নিয়ে আমরা মন্তব্য করি না।’


ওএলইডি ডিসপ্লের জন্য কোনো ব্যাকলিট দরকার হয় না বলে লিকুইড ক্রিস্টাল ডিসপ্লের (এলসিডি) তুলনায় এটিকে বাঁকা করা সহজ।


বিভিন্ন প্রযুক্তি শো উপলক্ষে এ ধরনের বাঁকানো ডিসপ্লে প্রদর্শন করেছে স্যামসাং ও এলজি। তবে বাণিজ্যিকভাবে এ ধরনের পণ্য এখনো আলোর মুখ দেখেনি।

অবশ্য স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি এজে স্মার্টফোন সিরিজে কারিগরি ভাবে নমনীয় ডিসপ্লে ব্যবহার করে দেখানো হয়েছে। এই ফোনের দুই দিকে কিছুটা বাঁকানো। তবে এ ফোনকে ইচ্ছামতো কোনো আকার দিতে পারেন না ব্যবহারকারীরা। 

২০১২ সালে এস ৩ স্মার্টফোন উন্মুক্ত করার সময় থেকেই স্যামসাং বাঁকানো প্রযুক্তির স্মার্টফোন আনবে বলে গুঞ্জন রয়ে গেছে। কিন্তু এ গুঞ্জন এখনো সত্যি হয়নি।

Post A Comment: