স্পর্শকাতর বিষয়ে আলটপকা মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছেন বলিউড তারকা সালমান খান। আসন্ন ‘সুলতান’ ছবির শুটিংয়ের সময় তাঁর পরিশ্রম ও ক্লান্তিকে ধর্ষণের শিকার নারীর অবস্থার সঙ্গে তুলনা করেছেন তিনি। ভারতীয় এক গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তাঁর ওই বক্তব্য প্রকাশের পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। তবে সেই ক্ষোভ কেবল ভার্চুয়াল জগতেই সীমাবদ্ধ নেই। মনে হচ্ছে, অবিবেচকের মতো মন্তব্য করে এবার ভালো ঝামেলায় পড়তে যাচ্ছেন এই অভিনেতা।


ভারতীয় জাতীয় মহিলা কমিশনের নোটিশ
গতকাল মঙ্গলবার সালমানের এমন মন্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়ে তাঁর কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছে জাতীয় মহিলা কমিশন। চিঠির জবাব দেওয়ার জন্য এই বলিউড তারকাকে সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে সাত দিন। কমিশনের প্রধান ললিতা কুমার মঙ্গলম জানিয়েছেন, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সালমান খানকে এই চিঠির জবাব দিতে হবে। জবাবে সন্তুষ্ট না হলে তাঁকে ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায় কমিশনে তাঁকে তলব করতে পারে।
একই সাক্ষাৎকারে ‘নারী’ বিষয়ে সালমান খান একটি আপত্তিকর মন্তব্য করেন। কথা প্রসঙ্গে তিনি নারীদের ‘পাপ’ বলে উল্লেখ করেছিলেন।
ভাইয়ের পক্ষে ভাই
সালমানের বেফাঁস মন্তব্যে যখন গোটা পরিস্থিতি সরগরম, তখন বিতর্কের আগুনে ঘি ঢেলেছেন তাঁর ছোট ভাই আরবাজ খান। তিনি মনে করেন, বড় ভাই সালমান খারাপ উদ্দেশ্যে কিছু বলেননি। জনগণ এই মন্তব্য নিয়ে খামোখাই বেশি মাতামাতি করছে।
আরবাজ এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘সালমান মুখে কী বলেছেন, সেটা নিয়েই শুধু আলোচনা হচ্ছে। কিন্তু তিনি আসলে কী বোঝাতে চেয়েছেন, সেটাও ভেবে দেখা উচিত। তিনি কথাটা বলেছিলেন শুধু তুলনা করার জন্য। কেউ যদি কথার কথা বলেন, আমি গাধার মতো কাজ করি, তাহলে হয়তো জীবজন্তু নিয়ে কাজ করে—এমন কেউ এসে তাঁর ওপর চড়াও হবেন। কেন তিনি গাধার সঙ্গে নিজেকে তুলনা করলেন, তখন এই নিয়ে কথা উঠবে। ’
আরবাজের ভাষায়, ‘আমি নিশ্চিত, সালমান উপলব্ধি করতে পেরেছেন যে তাঁর এই উপমাটি যথাযথ হয়নি। তিনি যদি মনে করেন তাঁর ক্ষমা চাওয়া উচিত, তাহলেই তিনি ক্ষমা চাইবেন। কিন্তু হুট করে বলে দেওয়া ঠিক নয় যে সালমানকে অবশ্যই ক্ষমা চাইতে হবে। আমি আশা করি, যেহেতু বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে, তাই তিনি তাঁর মন্তব্যের একটি পরিষ্কার ব্যাখ্যা অবশ্যই দেবেন। কারণ, বহু তরুণ ভক্ত তাঁকে অনুসরণ করে। ’
ক্ষমা চাইলেন বাবা
যার বক্তব্য নিয়ে এত তোলপাড়, সেই সালমান এখনো নীরব। কিন্তু তাঁর পক্ষে ক্ষমা চেয়েছেন বাবা সেলিম খান। পরপর তিনটি টুইট করে সেলিম খান তাঁর ছেলের মন্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘সালমান যা বলেছে, তা অবশ্যই ভুল। যে পরিস্থিতিতে সে কথাটি বলেছে, তা মোটেও ঠিক হয়নি। তবে ওর উদ্দেশ্য খারাপ ছিল না। ’ আরেক টুইটে তিনি সালমান, তাঁর পরিবার ও ভক্তদের পক্ষ থেকে সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি আরও লিখেছেন, ‘ক্ষমার অযোগ্য ঘটনাকেও ক্ষমা করতে পারাটাই বড় গুণ। মানুষমাত্রই ভুল করে। আজ বিশ্ব যোগ দিবসে এই ভুল নিয়ে আর মাতামাতি না করাই ভালো।’
বলিউড তারকাদের অনেকে আবার সালমানের পক্ষে সাফাই গাওয়ার চেষ্টা করছেন। সালমানের ঘনিষ্ঠরা বলছেন, এই মন্তব্য করার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি বুঝতে পেরেছিলেন, এটা বলা ঠিক হয়নি। সেই মুহূর্তেই তিনি সাক্ষাৎকার থেকে এই মন্তব্যটি বাদ দেওয়ার অনুরোধ করেন। কিন্তু সালমানের সেই সাক্ষাৎকারের অডিও রেকর্ডও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে গেছে। অনেকে আবার মনে করছেন ‘সুলতান’ মুক্তির আগে এই বিতর্ক স্রেফ প্রচার পাওয়ার জন্য, আর কিছু নয়। এনডিটিভি, বিবিসি

Post A Comment: