হেরা ফেরি’ ছবিকে বলা যায় বলিউডের এ-যাবৎকালের অন্যতম সেরা কমেডি ছবি। দর্শকদের জন্য খুশির খবর হলো, তুমুল হাসির পসরা সাজিয়ে ‘হেরা ফেরি’, ‘ফির হেরা ফেরি’ ছবির পর এবার আসছে এ সিরিজের তৃতীয় ছবি। আরও একটি খুশির ব্যাপারও আছে, এই ছবিতেও যথারীতি জনপ্রিয় চরিত্র ‘বাবুরাও গণপত্রাও আপ্তে’ (বাবুরাও), ‘রাজু’ এবং ‘ঘনশ্যাম’ (শ্যাম) চরিত্র রূপদান করবেন যথাক্রমে পরেশ রাওয়াল, অক্ষয় কুমার ও সুনীল শেঠি।


সম্প্রতি ভারতের প্রথম সারির একটি ট্যাবলয়েডের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ২০০৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘ফির হেরা ফেরি’ ছবির পরিচালক নীরাজ ভোরা চেয়েছিলেন নতুন এই ছবিতে ‘দোস্তানা’ ছবির দুই সহ-অভিনেতা জন এব্রাহাম আর অভিষেক বচ্চনকে নিয়ে আসতে। কিন্তু সৌভাগ্যক্রমেই হোক আর দুর্ভাগ্যক্রমে, তাঁদের দুজনই অন্য ছবিতে কাজের ব্যস্ততার অজুহাতে ছবিটি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। ‘রাজু’ চরিত্রের জন্য এবার ভাবা হচ্ছিল অভিষেক বচ্চনকে। কিন্তু তিনি গত বছর ডিসেম্বরেই এই প্রকল্প থেকে বেরিয়ে গেছেন।
অন্যদিকে রোহিত ধাওয়ানের অ্যাকশন-অ্যাডভেঞ্চার ঘরানার ‘ঢিসুম’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য গত বছর সেপ্টেম্বরেই প্রকল্প থেকে মুখ ফিরিয়ে নেন জন এব্রাহাম।
কিন্তু সবকিছুই কোনো না কোনো কারণে হয় এবং যা হয়, তা ভালোর জন্যই হয়। জন আর অভিষেক থাকছেন না বলেই তো দর্শক আবার ফিরে পাচ্ছেন অক্ষয় আর সুনীলকে। পরেশ রাওয়ালের সঙ্গে অভিনয় করে তাঁরাই তো এই ছবিকে জনপ্রিয়তার শীর্ষে নিয়ে গিয়েছিলেন।
তবে এ ছবির নারী চরিত্রে কারা রূপদান করবেন, সে সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। ছবিটি প্রথমে এ বছর আগস্ট মাসে মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও পরে তা পিছিয়ে ২০১৭ সালে নেওয়া হয়।

Post A Comment: