সত্যি সত্যিই কি তিনি নিজের ধর্ম পরিচয় লুকাতে চাচ্ছেন? তবে তিনি কি অধার্মিক বাবা মায়ের ধার্মিক সন্তান? কিংবা তিনি কি সবসময় একজন খ্রিস্টান ছিলেন বা সবসময় মুসলিম ছিলেন? নাকি তার নিজস্ব উদ্ভাবিত কোনো ধর্ম আছে? তার মানে তিনি কি একই সাথে একজন খ্রিস্টান ও আবার মুসলিমও?


বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘ অনুসন্ধান করেছে যুক্তরাষ্ট্রের পত্রিকা ওয়াশিংটন টাইমস। অনুসন্ধানে নিয়ে পত্রিকাটিতে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা নিজের ধর্মজীবন নিয়ে আসলে একজন ঘোর মিথ্যাবাদীর মতো আচরণ করেন। ২০০৪ সালে বারাক ওবামাপ্রশ্ন করা হয়েছিল, ‘আপনি কি খ্রিস্টান? উত্তরে তিনি বলেছেন আমি আমার মায়ের কাছে লালিত-পালিত হয়েছি। আমার মা খ্রিস্টান ছিলেন।২০০৭ সালের ডিসেম্বরে তিনি ঘোষণা দিয়েছেন কেবল বাবার দিক থেকেই আমার ইসলামের সাথে সম্পর্ক আছে। কিন্তু আমি কখনো ইসলামের চর্চা করিনি। ২০০৯ সালে তিনিই আবার সম্পূর্ন ভিন্ন কথা। বারাক ওবামা বলেন, আমি কোনো বিশেষ ধার্মিক পরিবারে বেড়ে উঠিনি। আমার বাবা ছিলেন মুসলমান। আমার দাদা-দাদী ছিলেন ব্যাপটিস্ট।শিকাগোতে আসার পূর্বে আমি খ্রিস্টান ছিলাম না। পরবর্তীতে ২০১০ সালে তিনি বলেন,আমি সবশেষে খ্রিস্টান ধর্মকেই গ্রহণ করে নিয়েছি।

প্রশ্ন জাগে, বারাক ওবামাসত্যি সত্যিই কি নিজের ধর্ম পরিচয় লুকাতে চাচ্ছেন? তবে তিনি কি অধার্মিক বাবা মায়ের ধার্মিক সন্তান? কিংবা তিনি কি সবসময় একজন খ্রিস্টান ছিলেন বা সবসময় মুসলিম ছিলেন? নাকি তার নিজস্ব উদ্ভাবিত কোনো ধর্ম আছে? তার মানে তিনি কি একই সাথে একজন খ্রিস্টান ও আবার মুসলিমও?

‘ড্রিমস ফ্রম মাই ফাদার’ বইটির ৪০৭ পৃষ্ঠায় তারা দাদার ধর্ম পরিবর্তন নিয়ে তার (দাদার) একটি লম্বা উক্তিও তুলে ধরেন। তার দাদার কথাটি ছিলো- ‘খ্রিস্টান ধর্মকে আমার কাছে মনে হয়েছে এক ধরণের বোকামি। কেবল নারীদের জন্যই তা গ্রহণযোগ্য। সুতরাং এজন্যই তিনি ধর্মান্তরিত হয়েছেন’। এমনকি ওবামা তার এই বইয়ের ১০৪ পৃষ্ঠায় বলেছেন, যখন কেউ তাকে বারাক ওবামা বলতেন তুমি কি মুসলিম? তার উত্তরে তিনি বলতেন আমার দাদা মুসলমান ছিলেন।

Post A Comment: