গরমে প্রাণ যখন ওষ্ঠাগত, তখন হাত বাড়াই গ্লাস ভর্তি ঠাণ্ডা পানির দিকে। ক্লান্ত শরীরে আরেকটু ফুর্তির আমেজ আনতে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা মিল্কশেকের তুলনা হয় না। নিজের সঙ্গে পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দিতে পারেন গরমে আরামদায়ক এই পানীয়। তীব্র গরমে তাদের তৃপ্তিভরা হাসি দেখতে পছন্দের মিল্কশেকই সেরা। মন জুড়ানো স্বাদে আর রূপ বাহারে আপনার হাতেই তৈরি হবে মিল্কশেক। এই গরমে অতিথি আপ্যায়নেও দারুণ উপযোগী এই পানীয়। তাই আসুন শিখে নেয়া যাক ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের কয়েক পদের মিল্কশেক প্রস্তুত প্রণালী। আপেল মিল্কশেক- যা যা লাগবে আপেল খোসাসহ টুকরো ৪ কাপ, দুধ ১ লিটার, কয়েক টুকরো কাজুবাদাম, কয়েক টুকরো দারুচিনি গুঁড়া, প্রয়োজনমতো বরফ ও চিনি। যেভাবে করবেন প্রয়োজনমতো চিনি দিয়ে টুকরো আপেলকে ব্লেন্ড করে নিন। এবার জ্বাল দিয়ে রাখা অর্ধেক পরিমাণ দুধ আপেলের মিশ্রণে দিয়ে আবার একটু ব্লেন্ড করতে হবে। সবশেষে বাকি অর্ধেক দুধ ঢেলে দিয়ে আবারও নেড়ে নিন। এবার গ্লাসে ঢেলে ২ থেকে ৩টি বরফের টুকরোসহ প্রয়োজনমত মিশ্রণটি নিন। এবার একটু দারুচিনি গুঁড়া ছিটিয়ে দিন। শেষে বাদাম এবং কাজুবাদামের টুকরোগুলো দিয়ে সুন্দরভাবে তা পরিবেশন করুন।

  গরমে প্রাণ যখন ওষ্ঠাগত, তখন হাত বাড়াই গ্লাস ভর্তি ঠাণ্ডা পানির দিকে। ক্লান্ত শরীরে আরেকটু ফুর্তির আমেজ আনতে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা মিল্কশেকের তুলনা হয় না। নিজের সঙ্গে পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দিতে পারেন গরমে আরামদায়ক এই পানীয়। তীব্র গরমে তাদের তৃপ্তিভরা হাসি দেখতে পছন্দের মিল্কশেকই সেরা। মন জুড়ানো স্বাদে আর রূপ বাহারে আপনার হাতেই তৈরি হবে মিল্কশেক। এই গরমে অতিথি আপ্যায়নেও দারুণ উপযোগী এই পানীয়। তাই আসুন শিখে নেয়া যাক ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের কয়েক পদের মিল্কশেক প্রস্তুত প্রণালী।

আপেল মিল্কশেক- যা যা লাগবে

আপেল খোসাসহ টুকরো ৪ কাপ, দুধ ১ লিটার, কয়েক টুকরো কাজুবাদাম, কয়েক টুকরো দারুচিনি গুঁড়া, প্রয়োজনমতো বরফ ও চিনি।


যেভাবে করবেন

প্রয়োজনমতো চিনি দিয়ে টুকরো আপেলকে ব্লেন্ড করে নিন। এবার জ্বাল দিয়ে রাখা অর্ধেক পরিমাণ দুধ আপেলের মিশ্রণে দিয়ে আবার একটু ব্লেন্ড করতে হবে। সবশেষে বাকি অর্ধেক দুধ ঢেলে দিয়ে আবারও নেড়ে নিন। এবার গ্লাসে ঢেলে ২ থেকে ৩টি বরফের টুকরোসহ প্রয়োজনমত মিশ্রণটি নিন। এবার একটু দারুচিনি গুঁড়া ছিটিয়ে দিন। শেষে বাদাম এবং কাজুবাদামের টুকরোগুলো দিয়ে সুন্দরভাবে তা পরিবেশন করুন।

Post A Comment: